করোনা ঠেকাতে মাস্ক ভ্যাকসিনের থেকেও ভালো।

Sat, May 1, 2021 2:18 AM

করোনা ঠেকাতে মাস্ক ভ্যাকসিনের থেকেও ভালো।

অধ্যাপক ডা. নজরুল ইসলাম :  ভারতীয় ভেরিয়েন্ট, সাউথ আফ্রিকান ভেরিয়েন্ট, ইউকে ভেরিয়েন্ট যা-ই বলেন, সব ভেরিয়েন্টের বিপরীতে আমাদের প্রধান সতর্কতা হওয়া উচিত সবার মাস্ক ব্যবহার করা। অথচ মাস্ক ব্যবহারকে আমরা তেমন গুরুত্ব দিচ্ছি না। মাস্ক ফুটো হয়ে ভাইরাস সংক্রমণ ঘটায় এমনটা আমরা কিন্তু দেখছি না।

 

ধরুন, সংক্রমিত কোনো ব্যক্তির দেহ থেকে ভাইরাস ছড়িয়ে বাতাসে মিশল। এরপর হয়তো আরেকজনের দেহে প্রবেশ করবে। এখন যার শরীর থেকে ভাইরাসটা বের হচ্ছে সে যদি সঠিকভাবে মাস্ক ব্যবহার করে এবং যেই ব্যক্তির শরীরে ঢুকবে সে-ও যদি মাস্ক পরে, তাহলে ভাইরাস বের হওয়ার সময় একটা বাধা পাবে (এয়ার ফিল্টার হবে) এবং ঢোকার সময়ও বাধা পাবে। যেখানে ১০০টি বের হওয়ার কথা সেখানে হয়তো ২০টি বের হবে। এখানে দুটি মাস্ক ভাইরাস প্রতিরোধে ভূমিকা রাখছে। আমরা যদি শতভাগ মাস্ক ব্যবহার করি, তাহলে ভাইরাস ঢোকার কোনো সুযোগ কিন্তু পাচ্ছে না। অথচ এই সহজ জিনিসটা আমরা বোঝাতে পারছি না। সাউথ আফ্রিকান ভেরিয়েন্ট ভ্যাকসিন রেজিস্টেন্ট। ঠিক একই কথা ইন্ডিয়ান ভাইরাসের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য।

 কিন্তু মাস্কের বেলায় রেজিস্টেন্ট ভাইরাস নেই। মাস্ক পরার পর অন্যান্য রোগব্যাধি, যেমন—শ্বাসকষ্ট, সর্দি-কাশি ইত্যাদিও কমে যায়। মাস্ক পরলে অন্য ভাইরাস তো ঢুকছে না, অ্যালার্জেনও ঢুকছে না। মাস্ক ৯৬ শতাংশ ভাইরাস জীবাণু প্রতিরোধ করে। করোনা ঠেকাতে মাস্ক ভ্যাকসিনের থেকেও ভালো। কেননা কভিভ ভ্যাকসিনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ১০ বছর পর কী হবে তা আমরা কিন্তু জানি না। এত অল্প সময়ে পৃথিবীতে কোনো ভ্যাকসিন এর আগে তৈরি হয়নি।

অধ্যাপক ডা. নজরুল ইসলাম, ভাইরোলজিস্ট, সাবেক উপাচার্য, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়

কালের কণ্ঠে প্রকাশিত সাক্ষাতকার থেকে নেয়া


Designed & Developed by Tiger Cage Technology
উপরে যান