ইসলাম হেফাজতের দায়িত্ব শুধু আলেমদের নয়....

Sun, Apr 25, 2021 8:40 PM

ইসলাম হেফাজতের দায়িত্ব শুধু আলেমদের নয়....

পলাশ রহমান: হেফাজতের কমিটি ভেঙ্গে দেয়া প্রত্যাশিত ছিল। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে বৈঠকের পরে বিষয়টা পরিস্কার হয়ে গিয়েছিল। গেল ক'দিনের হেফাজত পাড়ার আলোচনাও এটা নিয়েই ছিল।

সরকারের প্রেসক্রিপশনেই হেফাজতের কমিটি ভেঙ্গে দেয়া হয়েছে। এখন আহবায়ক কমিটি নতুন কমিটি করবে। নতুন কমিটিতে কোনো রাজনৈতিক আলেম থাকবে না, সরকারের চাওয়া এমনই।

আমি মনে করি, হেফাজত রাজনৈতিক আলেমদের হাতে হাইজ্যাক হয়ে গিয়েছিল। সরকার সেটা উদ্ধার করতে সহযোগীতা করেছে। মতলব যা'ই থাক, এ জন্য অন্তত সরকার একটা ধন্যবাদ পায়।

সরকারের চেষ্টা হলো হেফাজতকে গিলে খাওয়া। আপাতচোখে সরকারকে সফল মনে হলেও সরকার জানে তারা সফল নয়। বাংলাদেশের আলেমরা কখনোই আওয়ামীলীগকে মন থেকে গ্রহণ করে না। এ কথা আওয়ামীলীও জানে। তারা খুব স্বচ্ছ ভাবে জানে- আওয়ামীলীগ আর 'মুসলমান' এক সাথে যায় না। সো তারাও আলেমদের কখনো মন থেকে গ্রহণ করে না।

মোদ্দা কথা হলো ঘটনা যা'ই হোক- হেফাজতকে রাজনৈতিক আলেমমুক্ত করা জরুরী ছিল। দেশের তৌহিদী জনতার দাবীও এর পক্ষে ছিল। সুতরাং নতুন কমিটি রাজনৈতিক আলেমমুক্ত হওয়াই সঙ্গত হবে।

তবে হেফাজতের কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে যে হাজার হাজার নেতাকর্মী জেলা আছে, আহত হয়েছে, মারা গিয়েছে তাদের কী হবে? জোনায়েদ বাবুনগরি সাহেবরা কী কমিটি ভেঙ্গে দিয়েই দায়মুক্তি লাভ করবেন নাকী তাদের প্রতি দায়িত্ব পালন করবেন তা পরিস্কার হওয়া দরকার।

প্রথমেই বলেছি- হেফাজতের কমিটি ভেঙ্গে দেয়া প্রত্যাশিত ছিল। কারণ হেফাজত তার নিজস্বতা ধরে রাখতে পারেনি। বিশেষ করে আহমদ শফি সাহেবের মৃত্যুর পরের কমিটি জামায়াত প্রভাবিত হয়ে পড়েছিল। যা সরকারের পক্ষে মেনে নেয়া অসম্ভব ছিল।

অন্যদিকে ছোট ছোট ইসলামপন্থীদলগুলোর নেতারা তাদের দলের বা জোটের এজেন্ডা বাস্তবায়নে হেফাজতকে ব্যবহার করতে শুরু করেছিলেন। তারা কোনো দিন নিজেদের দলের কর্মসূচি ঘোষনা করে এত মানুষ একসাথে জড় করতে পারেনি। এত বড় মঞ্চে কথা বলার সুযোগ হয়নি। সুতরাং তারা একটু অতিমাত্রায় 'ইমোশনাল' হয়ে পড়েছিল।

এই ইমোশনাল পার্টি হেফাজতকে ব্যবহার করে তাদের দলীয় এজেন্ডা বাস্তবায়ন নির্ভিগ্ন করতে ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশের নেতাদের হেফাজত থেকে দুরে রেখেছিল। ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশ তাদের রাজনৈতিক এজেন্ডা বাস্তবায়নে বাধা হয়ে দাঁড়াত। এর জন্যে তারা দলটিকে সরকারের দালাল-টালাল বলে অনেক অপবাদ দিয়েছে।

আমি চাই- হেফাজত সকল রাজনৈতিক আলেমমুক্ত হোক এবং হেফাজতের নতুন কমিটির অন্তত ৩০ শতাংশ পদ 'অআলেমদের' জন্য ছেড়ে দেয়া হোক। কারণ 'ইসলাম' হেফাজতের দায়িত্ব শুধু আলেমদের নয়।

লেখক: পলাশ রহমান, ইতালী বসবাসরত সাংবাদিক।

লেখকের ফেসবুক পোষ্ট


Designed & Developed by Tiger Cage Technology
উপরে যান