ভ্যারিয়েন্ট নয়, ভারতের সমস্যা আক্রান্তের সংখ্যায়

Sun, Apr 25, 2021 8:24 PM

ভ্যারিয়েন্ট নয়, ভারতের সমস্যা আক্রান্তের সংখ্যায়

রুবায়েত হাসান তানভি:ভারতে করোনা পরিস্থিতি তার সাথে ডাবল মিউট্যান্ট, ট্রিপল মিউট্যান্ট বা বেঙ্গল ভ্যারিয়েন্ট নিয়ে নতুন আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে । পরিস্থিতি আতঙ্কজনক তাতে কোনো সন্দেহ নেই, কিন্তু এপরিস্থিতির জন্য এসব ভ্যারিয়েন্ট কতটুকু দায়ী তা নিয়ে এমনি এমনি মন্তব্য না করে চলুন একটু অংক করে দেখি ।

সহজ হিসেবের প্রয়োজনে, রোগের ভয়াবহতা বিচারে শুধু আক্রান্তের অনুপাতে মৃত্যু হার কত চলুন শুধু এটাই তুলনা করে দেখি । সারাবিশ্বে এপর্যন্ত করোনা রোগে মৃত্যুর হার ২.১ %, আর আজকের মৃত্যুর হার ১.৫৪ % । মৃত্যুর হার সবচেয়ে বেশি যেসব দেশে, তার মধ্যে সর্বপ্রথমেই রয়েছে ব্রাজিল, যেখানে এপর্যন্ত মৃত্যুর হার ২.৬ % আর আজকের মৃত্যুর হার ৪.২২ % । যুক্তরাষ্ট্রে এপর্যন্ত মৃত্যুর হার ১.৭৮  % আর আজকের মৃত্যুর হার ১.৪৫  % । এবার যদি ভারতের দিকে তাকাই, এপর্যন্ত মৃত্যুর হার ১.১৩ % আর আজকের মৃত্যুর হার ০.৭৯ % ।

তাহলে ভারতে এসময় ডাবল আর ট্রিপল মিউট্যান্ট যদি মূল সার্কুলেটিং ভ্যারিয়েন্ট হয়, কভিড-১৯ এ মৃত্যু হার বিচারে নিশ্চই এসব ভ্যারিয়েন্ট ইউকে , সাউথ আফ্রিকা বা ব্রাজিল  ভ্যারিয়েন্ট এর চাইতে বেশি ভয়ঙ্কর নয় । আসল কথা হলো ডাবল মিউট্যান্ট হোক বা ট্রিপল হোক এসব ভ্যারিয়েন্ট গুলোর ভয়াবহতা নিয়ে তো কোনো তুলনামূলক গবেষণা করা হয়নি । আপাতদৃষ্টিতে যা বুঝা যাচ্ছে নতুন মিউট্যান্ট আবির্ভুত হবার পরেও ভারতে মৃত্যুর হার অন্যান্য দেশ থেকে কম ।

তাহলে ভারতে বর্তমানে মূল সমস্যা টা কোথায় , মূল সমস্যা হলো মোট মৃতের সংখ্যায়। মূল সমস্যা আকাশ ছোয়া আক্রান্তের সংখ্যায় । আক্রান্তের হার বাড়লে একই হরে গুরুতর রোগীর সংখ্যা বাড়বে। বেড়ে এমন পর্যায়ে যাবে যে গুরুতর রোগীর চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় সব সামগ্রীর সংকট পড়বে।  দেশের গোটা স্বাস্থ্যব্যবস্থা ভেঙে পড়বে । ভারতে বর্তমানে এ চিত্রটিই দেখা যাচ্ছে । আমার টাইমলাইন ঘুরে দেখে আসতে পারেন এক বছর আগে থেকেই এই রকম একটি চিত্র তৈরী হবে বলেই আশঙ্কা করছিলাম।

বাংলাদেশের বর্তমান দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা বিচার করলে হয়তো ভারতের তুলনায় খুব নগন্যই মনে হবে কিন্তু  মৃত্যু হার কিন্তু খুব বেশি ভিন্ন না । তার উপরে মনে রাখা প্রয়োজন ভারতে করোনা টেস্ট এর হার কিন্তু বাংলাদেশের চাইতে প্রায় ১০ গুন্ বেশি । কাজেই বাংলাদেশের প্রকৃত আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যাও হয়তো ভারত থেকে খুব বেশি ভিন্ন না ।

কাজেই করোনাভাইরাসের যেই ভ্যারিয়েন্ট ই আসুক না কেন সমাধান একটাই ...প্রতিরোধ ! এটাই একমাত্র সাসটেইনেবল সলুশন । লক্ষ লক্ষ লোককে আক্রান্ত হবার সুযোগ দিয়ে, আইসিঊ র জন্য কপাল চাপড়ে কোনো সমাধান আসবে না ! সমাধান ভ্যাকসিন এ, সমাধান মাস্কিং এ ..ডাবল মাস্কিং এ ! সামাজিক দূরত্বে ! সামাজিক দূরত্ব মানে, মন থেকে দূরে নয়, শারীরিক দূরত্বে !

লেখকের ফেসবুক পোষ্ট থেকে


Designed & Developed by Tiger Cage Technology
উপরে যান