কাফির, বিধর্মী .. শব্দগুলো কি যথেষ্ট বর্ণবাদী নয়?

Mon, Apr 22, 2019 6:00 PM

কাফির, বিধর্মী .. শব্দগুলো কি যথেষ্ট বর্ণবাদী নয়?

স্নেহাশীষ রয়: শ্রীলংকার বিভৎস দৃশ্যগুলো দেখার পর থেকে ভুলতে পারছি না, যেমন ভুলতে পারছিলাম না, নিউজিল্যান্ডের মসজিদে পাখীর মতো গুলি করে মানুষ মারার দৃশ্যটি।

আমার ছেলের শ্রেণী শিক্ষক শ্রীলংকান। তার ভাই-বোন মারা গেছে, গৃহযুদ্ধকালীন বোমা হামলায়। সে আমাকে বললো, শ্রীলংকা এখন অনেক শান্ত। ছবির মতো দেশ, সমুদ্রের মাঝে রাণীর মতো সুসজ্জিত এক দ্বীপ। আমি বাংলাদেশে যাবো শুনে বললো, তুমি চাইলে শ্রীলংকা ঘুরে আসতে পারো। এখন শান্তি বিরাজ করছে। তামিল-সিংহলিজ যুদ্ধ এখন এক ইতিহাস।

আমি চাইলে যেতে পারতাম। যেমন জায়ানের বাবা গিয়েছিল, জায়ানকে নিয়ে। জায়ানের বাবার মতো আমিও পা হারাতে পারতাম। আমার ছেলেও...। আর ভাবতে চাই না।

জায়ান আজ বেঁচে নেই। আমার ছেলে বেঁচে আছে, কারণ ধূর্ত শৃগালের মতো মৃত্যু জায়ানকে বেছে নিয়েছিল। আমার ছেলেকে বেছে নেয় নি। জায়ানের স্থলে, যে কেউ বিভৎস উন্মাদনার শিকার হতে পারতো। যে গ্রহে আপনার এই ধরণের দূর্ঘটনার শিকার হওয়ার সম্ভাবনা নেই, সেটি পৃথিবী নয়, অন্য কোন গ্রহ।

দু:খজনক হলো, আমাদের বাঁচার জন্য দ্বিতীয় কোন গ্রহ নেই।

 

আমার মুসলিম ধর্মাবলম্বী বন্ধুরা মনে প্রাণে চাইছে, যেন ঘটনার সাথে ইসলামের কোন সম্পর্ক না বের হয়। তারাও লজ্জিত, ব্যথিত ও দু:খিত। কিন্তু হামলার ধরণ দেখে, আমার মনে হয় না, তাঁদের চাওয়াটি সত্য হিসেবে বেরিয়ে আসবে। হামলার ধরণটি একেবারেই পরিচিত, পৃথিবীর কাছে।

একটা ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে, যেখানে শ্রীলংকান এক সন্দেহভাজন সন্ত্রাসীর একটি বক্তব্য রয়েছে। সে বলছে, সে কাফিরদের মানুষ ভাবে না।

 

যখনই এমন ঘটনা ঘটে, তখনই আমার কেনো যেন ভয় কাজ করে। সাবওয়েতে যেতে যেতে, বিশেষ করে আমার ছেলে যখন আমার সাথে থাকে. কখনো কখনো মনে হয়, কেউ যদি এখনই এসে আমাদের সবাইকে কাফির ভেবে, বোমা মেরে উড়িয়ে দেয়। আমার ভয়টিকে কেউ হয়তো 'ইসলামোফোবিয়া' বলবে।

আমি সবিনয়ে জানতে চাই, বর্তমান পৃথিবীর প্রেক্ষাপটে বর্তমান ভয়টি কি আসলেই অমূলক? আপনি যে হোটেলে যান, যে সাবওয়েতে যান, সে সাবওয়েতে কি এমন একটি ঘটনা ঘটা খুবই অসম্ভব?

ফোবিয়ার আভিধানিক অর্থ হলো, অমূলক ভীতি। আপনি যখন বৈশাখী মেলায় যান, তখন আপনাকে ঘিরে রাখে অস্ত্রধারী পুলিশ। তাহলে , আমাদের ভীতি কি আসলেই খুব অমূলক? কোন নির্দিষ্ট ধর্মকে কাঠগড়ায় দাঁড় করানোর ইচ্ছে আমি পোষণ করি না।

যে নিরীহ মানুষকে হত্যা করে, সে ধার্মিক নয়, সে ধর্মোন্মাদ। সন্ত্রাসের কোন ধর্ম নেই। এটিও সত্য। কিন্তু কাফির শব্দটি তো এই পৃথিবীরই শব্দ।

 

শুধু এই টুকু জানতে ইচ্ছে হয়, কাফির, বিধর্মী, ইত্যাদি পঞ্চম শতাব্দীর শব্দগুলো কি যথেষ্ট বর্ণবাদী নয়? তবে শব্দগুলো শোনার পরও, আমরা কেমন করে মেনে নিই।

 

একবিংশ শতাব্দীর অভিধানে কেন এই শব্দগুলোর অস্তিত্ব থাকবে? আমি যদি প্রার্থনা করি এমন এক পৃথিবীর, যে পৃথিবীর শিশুদের কর্ণকুহরে এই সব বর্ণবাদী শব্দগুলো ধ্বনিত হবে না, তবে কি আপনি আমাকে ইসলামোফোবিক বলে ভৎর্সনা করবেন, নাকি বর্ণবাদবিরোধী বলবেন?

সিদ্ধান্ত আপনার।

 

 


Designed & Developed by Tiger Cage Technology
উপরে যান