মেয়র প্রার্থী ব্যারিস্টার তোফাজ্জলের আনুষ্ঠানিক নির্বাচনী প্রচারনা শুরু

Sat, Sep 8, 2018 12:45 PM

মেয়র প্রার্থী ব্যারিস্টার তোফাজ্জলের আনুষ্ঠানিক নির্বাচনী প্রচারনা শুরু

রেজাউল ইসলাম:  টরন্টো সিটি নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্ধি  বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্যারিস্টার তোফাজ্জল হক আনুষ্ঠানিকভাবে তার নির্বাচনী প্রচারনা শুরু করেছেন।  

শুক্রবার রাতে রয়্যাল  ক্যানাডিয়ান লিজিওন হলে  আয়োজিত অনুষ্ঠানে বাংলাদেশী কমিউনিটির উল্লেখযোগ্য সংখ্যক গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন

সিবিএন এর প্রধান সম্পাদক মুখ মাহাবুবুল হক ওসমানীর সঞ্চালনায় 'ক্যাম্পেইন কিক অফ'অনুষ্ঠানটি মূলত তিনটি ভাগে বিভক্ত ছিল। মেয়র প্রার্থী ব্যারিস্টার তোফাজ্জল হকের পরিচয় পর্ব ,মেয়র হিসাবে তার ভিশন মিশন,মেয়র প্রার্থী ব্যারিস্টার তোফাজ্জল হকের বক্তব্য এবং দর্শক সারি থেকে প্রশ্ন এবং প্রার্থী মেয়র কর্তৃক উত্তর দান পর্ব

অনুষ্ঠানের সঞ্চালক মাহাবুবুল হক ওসমানী প্রথমেই মেয়র প্রার্থী ব্যারিস্টার তোফাজ্জল হককে পরিচয় করিয়ে দেন এবং সেই সাথে মেয়র হিসাবে তার ভবিষ্যত পরিকল্পনা , ভিশন, মিশনের একটি সংক্ষিপ্ত রূপরেখা তুলে ধরেন ।

 এর পরপরই মেয়র প্রার্থী তোফাজ্জল হককে তার বক্তব্য দেওয়ার জন্য মঞ্চে আহ্বান জানানো হয় । মেয়র প্রার্থী তোফাজ্জল হক তিনি কেন মেয়র হতে চান , মেয়র নির্বাচিত হলে তার ভবিষৎ পরিকল্পনা কি হবে , তার জয়ী হবার সম্ভাবনা কতটুকু তার বিশদ বর্ণনা তুলে ধরেন ।

 তিনি বলেন, বাঙালি-বাংলাদেশিরা একতাবদ্ধ হলে মেয়র হিসাবে জয় লাভ করা সম্ভব । কিভাবে সেই জয় সম্ভব তিনি তা একটি সিম্পল ম্যাথের মাধ্যমে খুব চৌকস ভাবে ব্যাখ্যা দেন।তিনি বলেন, টরন্টো সিটিতে বাংলাদেশি ভোটারের  সংখ্যা ৪৫০০০ । এই ৪৫০০০ বাংলাদেশিরা হচ্ছে বেসিক ভোটার অর্থাৎ এটাকে বেজ ধরে যদি এগুনো যায় তবে সহজেই এই জয় সম্ভব । তিনি বলেন, ধরে নিচ্ছি এই বেসিক ভোটাররা সকলেই আমাকে ভোট দিবেন । সেই সঙ্গে এই ৪৫০০০ বেসিক ভোটারের প্রত্যেকেই যদি আরো ১০ জন ভোটারকে সংগ্রহ বা ম্যানেজ করে ভোট কেন্দ্রে তাকে ভোট দিতে নিয়ে আসতে পারে তবে তার প্রাপ্ত ভোট হবে ৪৫০০০০ যাকে তিনি আখ্যায়িত করেছেন ফাস্ট ইউনার হিসাবে । বেসিক ভোটাররা প্রত্যেকে ৮ জন ভোটার সংগ্রহ করতে পারলে তার প্রাপ্ত ভোট হবে ৩৬০০০০ যাকে তিনি অখ্যায়িত করেছেন সেকেন্ড ইউনার হিসাবে । এইভাবে দেখা যায় শেষ পর্যন্ত যদি বেসিক ভোটারাই শুধুমাত্র তাকে ভোট দেয় তাতেও ফোর্থ ইউনার হওয়া সম্ভব । ইতিপূর্বে যে সব মেয়র জয়ী হয়ে এসেছেন তাদের প্রাপ্ত ভোটের পরিসংখ্যায়ন থেকে দেখা যায় জয়ী হবার জন্য ৪৫০০০০ ভোট মেয়র পদে জয় নিশ্চিত করতে পারে ।

 এর পর তিনি তার পরিকল্পনার বিশদ বর্ণনা দেন । যার মধ্যে সাবসিডাইজ হাউজিংয়ের বিষয়টি এসেছে , টিটিসির কথা এসেছে, যাতায়ত ব্যবস্থার উন্নয়ন ,শিক্ষা ব্যবস্থার সংস্কার , কর ব্যবস্থার সহজীকরণ , কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা , সাম্প্রতিক আশংকাজনকভাবে বৃদ্ধিপ্রাপ্ত গান ভায়োলেন্স নিয়ন্ত্রণ, সিঙ্গেল মাদারদের সমস্যা দূরীকরণ এবং নূন্যতম মজুরি বৃদ্ধির কথা এসেছে ।

তিনি অতীত এবং বর্তমান মেয়রের কর্মকাণ্ডের সমালোচনা করেন । তিনি বলেন , বর্তমান মেয়র একজন আইনজ্ঞ হয়েও সঠিক নেতৃত্বের কাজটি না করে শুধু ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন । তিনি বর্তমান প্রিমিয়ার ডাগ ফোর্ড কর্তৃক সিটি কাউন্সিলর পদ হ্রাস করার তীব্র সমালোচনা করেন এবং সেই সময় মেয়র জন টোরি কোন ব্যবস্থা না নিয়ে সম্পূর্ণ ব্যর্থ নেতৃত্বের পরিচয় দেন বলে উল্লেখ করেন । তিনি অতীতে ড্রাগের সাথে জড়িত থেকে সাবেক মেয়র রব ফোর্ড মেয়র পদটিকে কলঙ্কিত করেছেন বলেও উল্লেখ করেন । তিনি এই সব থেকে মেয়র পদের গৌরব ফিরিয়ে আনার অংগীকার ব্যক্ত করেন ।

মেয়র প্রার্থী তোফাজ্জল হকের বক্তব্য শেষ হবার পর শুরু হয় প্রশ্নোত্তর পর্ব । দর্শক সারি থেকে মেয়র প্রার্থী তোফাজ্জল হককে প্রশ্ন করেন সর্বজনাব আখলাক হোসাইন , মার্জিয়া হক , মম কাজী প্রমুখ । প্রশ্নোত্তর পর্বে আলোচনায় অংশ নেন সর্বজনাব নওশের আলী, ২০ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী মহসিন ভূঁইয়া এবং মোহাম্মদ কামরুজ্জামান  ।

জনাব আখলাক হোসাইন প্রশ্ন করেন , জনপ্রিয় এবং শক্তিশালী রানিং মেয়র থাকতে এনং বর্তমান মেয়রের কি এমন ভুলত্রুটি আছে যার কারণে ভোটাররা আপনাকে ভোট দিবে ? এর উত্তরে জনাব তোফাজ্জল বলেন আমি আগেই বলেছি ,বর্তমান মেয়র একজন আইনজ্ঞ ছিলেন তথাপি তিনি নেতৃত্বের কাজটি না করে শুধুমাত্র ম্যানেজারিয়েল কাজ করে যাচ্ছেন , সেই হিসাবে তিনি সঠিক নেতৃত্ব দিতে ব্যর্থ হয়েছেন । মম কাজী প্রশ্ন করেন , বর্তমান সাবসিডাইজ হাউজিংয়ের ক্ষেত্রে যে সমস্যা বিদ্যমান তা তিনি কিভাবে সমাধান করবেন এবং তিনি জীবনযাত্রার ব্যয় অনুযায়ী ন্যূনতম মজুরির ক্ষেত্রে কোন পদক্ষেপ নিবেন কিনা ?মেয়র প্রার্থী জনাব তোফাজ্জল বলেন , টরোন্টোতে সিটির অনেক জায়গা খালি আছে, সেখানে সাবসিডাইজ হাউজিং নির্মাণের ব্যবস্থা নেওয়া হবে , আবেদন গুলি যথাযথভাবে স্ক্রুটিনি করে সব চেয়ে যার প্রয়োজন বেশি তাকেই বরাদ্দ দেওয়া হবে । তিনি মেয়র নির্বাচিত হলে ন্যূনতম মজুরি ঘন্টায় ২০ ডলার করার ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন । মার্জিয়া হক ডে-কেয়ার অপর্যাপ্ততার ক্ষেত্রে তার কোন পরিকল্পনা আছে কিনা জানতে চান । তিনি এক্ষেত্রে ডে-কেয়ারের সংখ্যা বৃদ্ধি সহ এক্ষেতে জনবল বৃদ্ধির আশ্বাস দেন ।

জনাব নওশের আলী ব্যারিস্টার তোফাজ্জলকে উদ্দেশ্য করে বলেন আপনি হচ্ছেন  "I" এটাকে "WE" করার দায়িত্ব আমরা নিলাম । তিনি বলেন আমি আজ থেকে কাজ শুরু করে দিয়েছি । আজ আমি আমার অফিসের বস এবং সহকর্মীদের আপনার মেয়র প্রার্থিতার কথা বলেছি , তারা এটা শুনে খুবই আগ্রহ বোধ করেছে । এভাবেই আমরা 'I'কে 'WE'এ পরিণত করার উদ্যোগ নিবো । কাউন্সিলর প্রার্থী জনাব মহসিন ভূঁইয়া একতাবদ্ধতার উপর গুরুত্ব আরোপ করেন । তিনি বলেন আমরা সবাই একসাথে ভেদাভেদ ভুলে মেয়র প্রার্থীর জন্য কাজ করলে জয় লাভ সম্ভব। তিনি তার নিজের পরিবার , নিজের বাসা থেকেই মেয়র প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণা শুরুর ঘোষণা দেন । একজন বক্তা তার নেইবারহুডের  ১৭০০-১৮০০ ভোটারের সব ভোট আদায় করে দেওয়ারও প্রতিশ্রুতি দেন ।

"ক্যাম্পেইন  কিক অফ" অনুষ্ঠানটি সর্ব দিক থেকে সাফল্যমন্ডিত ছিল । বাংলাদেশী কমিউনিটির মধ্যে যে উৎসাহ , উদ্দীপনা দেখা গেছে তাতে সত্যিই মেয়র প্রার্থী ব্যারিস্টার তোফাজ্জলের ভাষায় বলতে হয় " শুভ সকাল আসন্ন"।

বক্তারা  ব্যারিস্টার তোফাজ্জল হককে আগামী মেয়র নির্বাচনে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করার আহ্বান জানিয়ে আরেকটি ইতিহাস গড়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।


সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে
Designed & Developed by Tiger Cage Technology
উপরে যান