অন্টারিওর প্রাদেশিক নির্বাচন ও একজন ডলি বেগম

Mon, Jun 4, 2018 10:28 PM

অন্টারিওর প্রাদেশিক নির্বাচন ও একজন ডলি বেগম

ফারহানা আজিম শিউলি: কানাডার অন্টারিও প্রদেশের ৪২ তম প্রাদেশিক নির্বাচন হতে যাচ্ছে আগামী ৭ জুন। ১২৪ জন নির্বাচিত প্রতিনিধির সমন্বয়ে গঠিত হতে যাচ্ছে এবারের প্রাদেশিক সংসদ। সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিশ্চিত করতে হলে বিজয়ী দলকে পেতে হবে ৬৪ টি আসন। কোনো কোনো বিচারে কেন্দ্রীয় অর্থাৎ ফেডারেল নির্বাচনের চেয়েও মানুষের নিত্য দিনকার প্রয়োজনের প্রেক্ষিতে এই পাদেশিক নির্বাচন অধিক গুরুত্ব বহন করে।

অন্টারিও প্রদেশের প্রধান ৩টি রাজনৈতিক দল হচ্ছে: লিবারেল পার্টি, প্রগ্রেসিভ কনজারভেটিভ পার্টি ও নিউ ড্যামোক্রেটিক পার্টি (এনডিপি)। এর পরেই স্থান গ্রিন পার্টির। দলগুলোর নেতৃত্বে আছেন ক্যাথলিন উইন (লিবারেল), ডাগ ফোর্ড (কনজারভেটিভ), আন্ড্রিয়া হোরওয়ার্থ (নিউ ড্যামোক্রেট) ও মাইক শ্রাইনার (গ্রিন পার্টি)।

অন্টারিওর প্রাদেশিক নির্বাচনের ইলেক্টোরাল ডিস্ট্রিক্ট বা রাইডিং এর সংখ্যা ১২৪। আর এই ১২৪টি রাইডিং এর সবক'টিতেই প্রার্থী দিয়েছে প্রধান ৪টি দল। উল্লেখ্য এবারের প্রাদেশিক নির্বাচনে এই ৪ দলের বাইরেও প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে আরো প্রায় ২৫ টির মতো দলের প্রার্থীরা। দলগুলো  হচ্ছে: লিবারেটারিয়ান পার্টি, ট্রিলিয়াম পার্টি অব অন্টারিও, অন্টারিও মডারেট পার্টি, ফ্রিডম পার্টি অব অন্টারিও, কম্যুনিস্ট পার্টি অব কানাডা (অন্টারিও), কনসেনসাস অন্টারিও, নর্দার্ন অন্টারিও পার্টি, পিপলস পলিটিক্যাল পার্টি, ক্যানাডিয়ানস চয়েস পার্টি, অন্টারিও মডারেট পার্টি, পার্টি ফর পিপল উইথ স্পেশাল নিডস, অন্টারিও এলায়েন্স, কালচারাল একশন পার্টি অব অন্টারিও, নিউ পিপলস চয়েস পার্টি, অন্টারিও পার্টি, দ্য পিপলস পলিটিক্যাল পার্টি, স্টপ দ্য নিউ সেক্স-এড এজেন্ডা, কনফেডারেশন অফ রিজিওনস পার্টি অব অন্টারিও, কানাডিয়ান ইকোনোমিক পার্টি, গো ভেগান, মাল্টিকালচারাল পার্টি অব অন্টারিও, পার্টি অব অবজেক্টিভ ট্রুথ, পওপার, সোশ্যাল রিফর্ম পার্টি, স্টপ ক্লাইমেট চেঞ্জ। এই দলগুলোর বাইরেও কিছু রয়েছে স্বতন্ত্র পার্থী। তবে লিবারেটারিয়ান পার্টির ১১৭ টি রাইডিং এর প্রার্থীরা ছাড়া বাদবাকি দলগুলো হাতে গোনা কয়েকটিমাত্র রাইডিংএ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে।

১৮৬৭ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত অন্টারিওর গত ৪১ টি নির্বাচনে লিবারেলরা সরকার গঠন করেছে ১৭ বার, কনজারভেটিভরা ২২ বার আর এনডিপি ১ বার। তবে গত ৩০ বছরে লিবারেল পার্টি সরকার গঠন করে সর্বোচ্চসংখ্যক ৬ বার, কনজারভেটিভ পার্টি ২ বার ও এনডিপি ১ বার। সর্বশেষ ২০১৪'র নির্বাচনে লিবারেলরা ৫৮ টি, কনজারভেটিভরা ২৮ টি আর নিউ ড্যামোক্রেটরা ২১ টি আসনে জয়ী হয়েছিল। ২০১৪ সালের ৪১ তম প্রাদেশিক নির্বাচনে লিবারেল পার্টি ক্যাথলিন উইনের নেতৃত্বে মেজরিটি সরকার গঠন করে। গত ত্রিশ বছরে এই প্রদেশে ইমিগ্র্যান্টদের ডেমোগ্রাফিক বাস্তবতা হয়তো ইমিগ্র্যান্ট-অবান্ধব দক্ষিণপন্থী কনজারভেটিভদের পরাজয় ত্বরান্বিত করেছে।

এবারে অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনের প্রথম নির্বাচনী ডিবেটটি অনুষ্ঠিত হয় এপ্রিলের ১১ তারিখ, জ্যামাইকান কানাডিয়ান এসোসিয়েশনের উদ্যোগে। এতে অংশ নেন লিবারেল, নিউ ড্যামোক্রেট ও গ্রিন পার্টির প্রধানরা।

ডাগ ফোর্ড এতে অংশ নেননি। মে মাসের ৭ তারিখে, সিটি নিউজের আয়োজনে, প্রথম টেলিভিশন ডিবেটে অংশ নেন ডাগ, আন্ড্রিয়া ও ক্যাথলিন। দ্বিতীয় ও সবশেষ টেলিভিশন ডিবেটটি অনুষ্ঠিত হয় টরন্টোর কানাডিয়ান ব্রডকাস্টিং সেন্টারে (সিবিসি), মে'র ২৭ তারিখ। এতে অংশ নেন ক্যাথলিন, ডাগ এবং আন্ড্রিয়া।

নির্বাচনের আগাম ভোট প্রদান চলে মে মাসের ২৬ তারিখ থেকে ৩০ তারিখ পর্যন্ত।

বাজেট, ট্যাক্স, শিক্ষা, চাইল্ড কেয়ার, টানজিট ও ইনফ্রাস্ট্রাকচার, হাইড্রো এবং পরিবেশ - প্রধান ৩ টি দলের নির্বাচনী রূপরেখার উপর ভিত্তি করে এই ৬ টি বিষয়ে দলগুলোর অবস্থান জানা যায়।

বাজেট: বাজেট ঘাটতি পূরণ করে লিবারেলরা ২০২৪-২৫ নাগাদ ব্যালেন্সে ফিরবে। কনজারভেটিভরা প্রথম বছরে ঘাটতি মোকাবেলা করে দ্বিতীয় বছরেই ব্যালেন্সে ফিরবে এবং আগের সরকারের বাজেটের অডিট করবে। নিউ ড্যামোক্রেটরা ৫ বছর ধরে ২ থেকে ৫ বিলিয়ন ডলারের ঘাটতিতে থাকবে।

ট্যাক্স: লিবারেলরা পারসোনাল ও কর্পোরেট ইনকাম ট্যাক্স অপরিবর্তিত রাখবে। কনজারভেটিভরা কর্পোরেট ট্যাক্স ১১.৫% থেকে কমিয়ে ১০.৫% করবে; একেবারে প্রান্তিক আয়ের উপর থেকে ও ক্ষুদ্র  ব্যবসা থেকে ক্রমান্বয়ে ট্যাক্স কমিয়ে আনবে কিন্তু নূন্যতম ১ ডলার বর্ধিত মজুরি বাতিল করবে। আর নিউ ড্যামোক্রেটরা কর্পোরেট ট্যাক্স বর্তমান ১১.৫% থেকে বাড়িয়ে ১৩% করবে।

শিক্ষা: লিবারেলরা করবে - কারিকুলামের আধুনিকীকরণ, কিন্ডারগার্টেন থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সার্বিক মূল্যায়ন; উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে আগামী দশ বছর ধরে ৩ বিলিয়ন ডলার বরাদ্দ।  কনজারভেটিভরা 'সেক্স এডুকেশনে'র কারিকুলাম বাতিল করে 'সনাতন ম্যাথামেটিক্স' এডুকেশন ফিরিয়ে আনবে; উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে বরাদ্দ কমাবে। নিউ ড্যামোক্রেটরা আগামী দশ বছরে অন্টারিওর স্কুলগুলোর অবকাঠামোগত উন্নয়নে বরাদ্দ করবে ১৬ বিলিয়ন ডলার; কিন্ডারগার্টেনের ক্লাশে সর্বোচ্চ ২৬ জন ছাত্র-ছাত্রী থাকবে; শিক্ষাঋণের বদলে অপরিশোধযোগ্য গ্র্যান্ট দিবে; ইতোমধ্যে নেয়া শিক্ষাঋণের সুদ মওকুফ করবে।

চাইল্ড কেয়ার: লিবারেলরা আয় নির্বিশেষে, আড়াই থেকে জুনিয়র কিন্ডারর্গাটেনের শিশুদের জন্য দিবে বিনামূল্যে চাইল্ড কেয়ার। কনজারভেটিভরা চাইল্ড কেয়ারে ট্যাক্স রিবেট দিবে। আর নিউ ড্যামোক্রেটরা চাইল্ড কেয়ারের ক্ষেত্রে, আয় ভিত্তিক স্কেল চালু করবে; বাৎসরিক ৪০,০০০ ডলার পর্যন্ত চাইল্ড কেয়ার হবে ফ্রি এবং এর উপরের সীমার জন্য দিনপ্রতি মাত্র ১২ ডলার।

ট্রানজিট ও ইনফ্রাস্ট্রাকচার: লিবারেলরা ১৪ বছর মেয়াদে বিভিন্ন পাবলিক ট্রানজিট প্রজেক্টে ৭৯ বিলিয়ন ডলার ব্যয় করবে, যার মধ্যে আছে টরন্টো থেকে উইন্ডসরের হাই-স্পিড রেল, গো ট্রেনের যাত্রীদের খরচ কমানো ইত্যাদি। কনজারভেটিভরা টরন্টোয় নতুন সাবওয়ে বানানোর জন্য ৫ বিলিয়ন অতিরিক্ত বরাদ্দ দিবে। আর নিউ ড্যামোক্রেটরা মিউনিসিপাল ট্রানজিট সার্ভিসের অপারেটিং কস্টের ৫০ ভাগ বহন করবে; কিচেনার গো লাইন সার্ভিস সার্বক্ষণিক করবে; হ্যামিলটনে লাইট রেলওয়ে ট্রানজিট (এলআরটি) চালু করবে; গো লাইন এবং ইউনিয়ন পিয়ারসন এক্সপ্রেস বিদ্যুৎ-চালিত করবে; হাইওয়ে ৪১২ ও ৪১৮ থেকে কর অপসারণ করবে।

হাইড্রো: লিবারেলরা হাইড্রো খাত (হাইড্রো ওয়ানের কাছে) বেসরকারিকরণ করবে। কনজারভেটিভরা বেসরকারিকরণ বজায় রেখেই, মূল্য বৃদ্ধির অভিযোগে হাইড্রো ওয়ানের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার ও পরিচালনা পরিষদের সদস্যদের অব্যাহতি দিবে। আর নিউ ডেমোক্র্যাটরা হাইড্রো ওয়ানের কাছ থেকে, হাইড্রো খাত পুরোপুরি সরকারিকরণ করবে।

পরিবেশ: এনার্জি এফিশিয়েন্ট এনভায়রনমেন্ট খাতে লিবারেলরা ৩ বছর মেয়াদে ১.৭ বিলিয়ন ডলার ব্যয় করবে। নিউ ড্যামোক্রেটরা পরিবেশ খাতে ব্যয় করবে সব মিলিয়ে ৫০ বিলিয়ন। কনজারভেটিভদের পরিবেশ বিষয়ক কোনো প্রতিশ্রুতি নেই।

আর এই ছয় খাতের বাইরেও স্বাস্থ্য পরিসেবা খাতে লিবারেল আর ড্যামোক্রেটরা স্বল্প আয়-বান্ধব ব্যবস্থা গ্রহণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। ড্যামোক্রেটরা সরকারি খরচ ও ব্যবস্থাপনায় ডেন্টাল সেবারও প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

অন্টারিও প্রদেশের অধিবাসীরা কাদের ক্ষমতায় দেখতে চায় তার অনেকটুকুই নির্ভর করবে এই খাতগুলোতে রাজনৈতিক দলগুলোর নির্বাচনী প্রতিশ্রুতির উপর।

এবারের নির্বাচনে রাজনৈতিক দলগুলো নানান শ্লোগান সামনে রেখে প্রচারণা চালিয়েছে। এর মধ্যে লিবারেলদের শ্লোগান 'কেয়ার ওভার কাটস,' নিউ ড্যামোক্রেটদের 'চেইঞ্জ ফর দ্য বেটার,' কনজারভেটিভদের 'ফর দ্য পিপল,' গ্রিন পার্টির 'পিপল পাওয়ার্ড চেইঞ্জ,' আর লিবারেটারিয়ান শ্লোগান 'দ্য পার্টি অফ চয়েস।'

পুরো অন্টারিও প্রদেশের ১২৪ টি রাইডিং এর একটি হচ্ছে স্কারবোরা সাউথ ওয়েস্ট। এই ইলেকটোরাল ডিস্ট্রিক্টটি ১৯৯৯ থেকে অন্টারিওর লেজিসলেটিভ এসেম্বলিতে প্রতিনিধিত্ব করে আসছে। এখানে প্রচুর সংখ্যক বাংলাদেশী অভিবাসী বসবাস করেন। পুরো প্রদেশের মধ্যে এই এলাকা ও এর পার্শ্ববর্তী বিচেস-ইস্ট ইয়র্ক রাইডিং এ সর্বোচ্চ সংখ্যক বাংলাদেশী অভিবাসীদের বসবাস। ৩৭ তম প্রাদেশিক নির্বাচনে এই এলাকা থেকে জয়ী হন কনজারভেটিভ দলের ড্যান নিউম্যান। আর তার পর একটানা চারটি নির্বাচনে জেতেন লিবারেল প্রার্থী ইতালীয় বংশোদ্ভুত লরেঞ্জো বেরারদিনেত্তি। তিনিই এখানকার বর্তমান নির্বাচিত প্রতিনিধি। কনজারভেটিভ দলের হয়ে এখান থেকে লড়ছেন গ্যারি এলিস। আর এই এলাকাতেই এবারে এমপিপি (মেম্বার অব প্রভিন্সিয়াল পার্লামেন্ট) পদে লড়াই করছেন বাংলাদেশী বংশোদ্ভুত এনডিপি প্রার্থী ডলি বেগম। ছোটবেলায় বাবা, মা ও ভাই সহ ডলি কানাডায় আসেন এবং এই স্কারবোরা এলাকাতেই তখন থেকে বসবাস করছেন। ইউনিভার্সিটি অব টরন্টো থেকে স্নাতক ও ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডন থেকে ডেভেলপমেন্ট, এডমিনিস্ট্রেশন ও প্ল্যানিং এ স্নাতকোত্তর ডলি গত কয়েক বছর ধরে 'কিপ হাইড্রো পাবলিক' মুভমেন্টে চিফ কো অর্ডিনেটর হিসেবে নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন। এর ফলশ্রুতিতে টরন্টো ও ওয়াসাগা হাইড্রোর বেসরকারি করণ ঠেকানো গেছে। তিনি ভাইস চেয়ার হিসেবে গ্রীনউড কমিউনিটি সেন্টারে অভিবাসী জন্য কাজ করেছেন একটানা বেশ কয়েক বছর। পালন করছেন স্কারবোরো হেলথ কোয়ালিশনের কো চেয়ারের দায়িত্ব।

অভিবাসী জনগোষ্ঠীর প্রতিনিধি ডলি অভিবাসীদের নানান সমস্যার প্রতি অত্যন্ত সংবেদনশীল। এলাকার জনগনের জন্য তিনি সুনির্দিষ্ট কর্ম পরিকল্পনা তুলে ধরেছেন। এনডিপির রাজনৈতিক প্রতিশ্রুতির সাথে একাত্ম থাকার পাশাপাশি তিনি স্থানিক আরো কিছু বিষয় প্রতিশ্রুতিতে যুক্ত করেছেন। যেমন: এই এলাকার গাড়ি চালকদের ইন্স্যুরেন্স কমানো, নয়নাভিরাম স্কারবোরো ব্লাফস এলাকার পরিবেশগত উন্নয়ন ইত্যাদি। সরাসরি  রাজনীতিতে নবীন হলেও এলাকায় তার ধারাবাহিক ও সক্ষম এক্টিভিজম, তাঁর এনডিপির মতো দলের প্রার্থিতা পেতে প্রভাবক হিসেবে কাজ করেছে। মিডিয়ায় ইতোমধ্যে তিনি 'চ্যালেঞ্জিং' প্রার্থী হিসেবে পরিচিতি পেয়েছেন। তাঁর তারুণ্য, কার্যকর প্রতিশ্রুতি, আত্মপ্রত্যয়, ধারাবাহিক এক্টিভিজম - বাংলাদেশীদের গণ্ডী ছাড়িয়ে, তার নির্বাচনী এলাকার গণ্ডী ছাড়িয়ে বাইরেও একজন সক্ষম-গ্রহণযোগ্য প্রার্থীতে পরিণত করেছে । অন্য দলের সমর্থকরাও তাঁর হয়ে ভলান্টারী করছেন দিনরাত, তাঁকে ভোটের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

গত এক মাস ধরে মিডিয়ায় তোলপাড় চলছে এবারের প্রাদেশিক নির্বাচন নিয়ে। জরীপ চলছে, সর্ববিবেচনায় কে কার চেয়ে এগিয়ে। এখনো পর্যন্ত দেখা যাচ্ছে, মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে কনজারভেটিভ ও নিউ ড্যামোক্রেটদের মধ্যে। পিছিয়ে পড়েছে লিবারেলরা।  বর্তমান প্রিমিয়ার ক্যাথলি উইন তো মিডিয়ায় ঘোষণাই দিয়েছেন যে, নিশ্চিতভাবে তিনি আর প্রিমিয়ার থাকছেন না। তাঁর এই আগাম বিবৃতিতে তৈরি হয়েছে নানান বিতর্ক। তবে তিনি ব্যাখ্যায় বলেছেন, তিনি প্রিমিয়ার না হলেও জনগন যেনো লিবারেল প্রার্থীদের জয়ী করে, কনজারভেটিভ ও নিউ ড্যামোক্রেটদের একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা ঠেকিয়ে দেয়। আদর্শিকভাবে বিপরীত মেরুর কনজারভেটিভদের ঠেকানোর পাশাপাশি লিবারেলরা ভবিষ্যতের কথা মাথায় রেখে নিউ ড্যামোক্রেটদের মতো 'প্রগ্রেসিভ রাইভ্যাল' ও চায় না। ওদিকে ডাগ ফোর্ড ও আন্ড্রিয়া হোরওয়ার্থ দু'জনই সরকার গঠনে বেশ আত্মপ্রত্যয়ী। উল্লেখ্য, ইমিগ্র্যান্টদের বরাবরের পছন্দ ইমিগ্র্যান্ট-বান্ধব নিউ ড্যামোক্রেট ও লিবারেলরা।

মিডিয়ার পূর্বানুমান সত্য করে কনজারভেটিভ না ড্যামোক্রেট - কাদের সরকারে দেখতে চায় অন্টারিয়ানরা? কে হতে যাচ্ছেন এবারের প্রিমিয়ার? দক্ষিণ পন্থারই কি শেষমেশ জয় হবে? নাকি আলবার্টার মতো কমলা রঙের জোয়ারে ভাসিয়ে বিজয় ছিনিয়ে আনতে পারবে আন্ড্রিয়ার এনডিপি? ডলি বেগম কি জয়ী হয়ে কুইন্স পার্কে প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে এমপিপি (মেম্বার অব প্রভিন্সিয়াল পার্লামেন্ট) পদে অভিষিক্ত হয়ে ইতিহাস গড়তে যাচ্ছেন? সার্বিক ফলাফল যাই হোক না কেনো, কানাডিয়ান-বাংলাদেশীরা নিশ্চিতভাবে স্বপ্ন দেখছেন একজন আত্মপ্রত্যয়ী ডলি বেগমকে নিয়ে। ওয়েবসাইটে ডলির প্রোফাইলের নিচে শ্লোগান লেখা: 'ডলি বেগম ওউন্ট লেট ইউ ডাউন।' তবে তাই সত্য হোক। স্বপ্নপূরণ হোক ডলি বেগমের, সেই সাথে অগুনতি বাংলাদেশী-কানাডিয়ানদের। নিশ্চয়ই অভিবাসী বাংলাদেশীরা তাদের মূল্যবান ভোটটি দিয়ে, সংসদে প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে ডলি বেগমের প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত করে নিজেরাও গৌরবের অংশীদার হবেন, হবেন ইতিহাসের স্বাক্ষীও।

লেখক, সংস্কৃতি কর্মী


Designed & Developed by Tiger Cage Technology
উপরে যান