আওয়ামী লীগ কি ‘নতুন নেতৃত্বের’ কথা ভাবতে সক্ষম?

Fri, May 18, 2018 12:11 AM

আওয়ামী লীগ কি ‘নতুন নেতৃত্বের’ কথা ভাবতে সক্ষম?

শওগাত আলী সাগর: ‘নতুন নেতৃত্বের কথা ভাবতে বলেছেন শেখ হাসিনা’- ঢাকার পত্রিকাগুলো এমন একটি খবর প্রকাশ করেছে। শেখ হাসিনা বলেছেন, “৩৭ বছর হয়ে গেছে.. একটা দলের সভাপতি হিসাবে ৩৭ বছরের বেশি থাকা বোধ হয় সমীচীন হবে না।”

নতুন নেতৃত্বের কথা শেখ হাসিনা যে এই প্রথম বললেন তা কিন্তু না। এর আগেও শেখ হাসিনা ‘নতুন নেতৃত্বের কথা ভাবতে’ বলেছেন। একবার তো অবসরে যাওয়ার ইচ্ছার কথাও প্রকাশ করেছিলেন।

কিন্তু আওয়ামী লীগ কি ‘নতুন নেতৃত্বের’ কথা ভাবতে সক্ষম? জেনে বুঝেই আমি সক্ষমতার কথা বললাম। গত ৩৭ বছরে দলটি. দলের নেতা কর্মীরা শেখ হাসিনার বাইরে কিছু যে ভাবা যায়, সেই বোধটুকুও হারিয়ে ফেলেছেন। সরকারের যারা মন্ত্রী, তারাও তো দেখি নিজের দায়িত্বটুকু পর্যন্ত পালন করতে পারেন না- শেখ হাসিনার মুখের দিকে তাকিয়ে থাকেন। সামগ্রিকভাবে একটি দলের জন্য  এটি মোটেও স্বস্তিকর নয়, ভালোও নয়।

গতিশীল রাজনৈতিক দলে নতুন নতুন নেতৃত্ব তৈরি হয়, দলের মধ্যে নেতৃত্ব তৈরির প্রক্রিয়া থাকে, চর্চ্যা থাকে। অগ্রজ নেতারা নিজেরা পথ থেকে সরে গিয়ে নতুনদের জন্য জায়গা করে দেন।

বাংলাদেশে এই ধরনের চিন্তা করা আকাশ কুসুম কল্পনামাত্র। এইখানে বরং নেতারা নিজেদের অন্ধ স্তাবক গোষ্ঠী গড়ে তুলেন। শেখ হাসিনা সেটি করেননি।  তারা দক্ষ নেতৃত্ব পুরো দলকেই তার সক্ষমতার মধ্যে বিলীন করে দিয়েছে। ফলে শেখ হাসিনার বাইরে আওয়ামী লীগের মধ্যে আর কিছু যে ভাবা যায়- সেই ভাবনার সক্ষমতাও দলের মধ্যে গড়ে ওঠেনি।

আমরা  শেখ হাসিনার ‘‘নতুন নেতৃত্বের কথা ভাববার’ পরামর্শকে স্বাগত জানাই। দলে কোনো একটা সময়ে নতুন নেতৃত্বের প্রয়োজন হতে পারে- এই ভাবনাটা অন্তত দলের মধ্যে সঞ্চারিত হোক।

শওগাত আলী সাগর, নতুনদেশ ডটকম এর প্রধান সম্পাদক


Designed & Developed by Tiger Cage Technology
উপরে যান