১০ হাজার লোকের সমাগম হবে বিশ্ব সিলেট সম্মেলনে - তমাল

Sat, May 5, 2018 12:06 PM

১০ হাজার লোকের সমাগম হবে বিশ্ব সিলেট সম্মেলনে - তমাল

নতুনদেশ ডটকম: টরন্টোয় অনুষ্ঠেয়  বিশ্ব সিলেট সম্মেলন ২০১৮ সম্মেলনে কমপক্ষে ১০ হাজার লোকের সমাগম হবে বলে আয়োজকরা আশা করছেন।

সম্মেলনের  আয়োজক সংগঠন জালালাবাদ এসোসিয়েশন অব টরোন্টো কানাডার সভাপতি দেবব্রত দে তমাল এই তথ্য জানিয়ে বলেন, গত ২০১৭ সনের নিউইয়র্ক  বিশ্ব সিলেট সম্মেলনে বাংলাদেশ, ভারত,ইংল্যান্ড,জাপান,ব্রাজিল, কানাডাসহ আমেরিকার বিভিন্ন প্রদেশের প্রতিনিধিত্ব ছিল। আমরা এই দেশগুলোসহ জার্মান অস্ট্রেলিয়া ও মধ্যপ্রাচ্যে বসবাসরত সিলেটি ভাষাভাষীসংগঠনগুলোর সাথে যোগাযোগ করে যাচ্ছি এবং ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। আশা করছি টরন্টো বিশ্ব সিলেট সম্মেলনে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক দেশের প্রতিনিধিত্ব থাকবে।         ‌ 

এধরণের একটি সম্মেলন করার উদ্দেশ্য কি? জানতে চাওয়া হলে দেবব্রত দে তমাল বলেন,  বিশ্ব সিলেট সম্মেলন  পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে থাকা সিলেটি ভাষাভাষীদের একটি মঞ্চ। অবিভক্ত সিলেট থেকে আজ অবধি যারা সিলেটি ভাষা, সাহিত্য, সংস্কৃতি,কৃষ্টি , সর্বোপরি অসাম্প্রদায়িক মূল্যবোধ ধারণ করে বিশ্বের যে প্রান্তেই অবস্থান করেন না কেন তিনি এই মঞ্চের গর্বিত অংশীদার। মূলত বাংলাদেশের বৃহত্তর সিলেট বিভাগের জনগোষ্ঠীই যুগ যুগ ধরে লালন করে আসছে সিলেটি কৃষ্টি ও সংস্কৃতি। একই সাথে আমাদের আদিবাসী সংস্কৃতি ও সিলেট বিভাগের সংস্কৃতিকে তুলে ধরেছে ভিন্ন মাত্রায়। সিলেটের অসাম্প্রদায়িক মূল্যবোধ ও সহঅবস্থান আমাদের গৌরব আমাদের ঐতিহ্য। বিশ্ব সিলেট সম্মেলনের অন্যতম প্রতিপাদ্য বিষয় হলো সিলেটের সামগ্রিক উন্নয়ন। উক্ত সম্মেলনে বৃহত্তর সিলেট অঞ্চলের ইতিহাস,ঐতিহ্য, শিক্ষা,সংস্কৃতি, অর্থনীতি, পর্যটন, পরিবেশ,মহান মুক্তিযুদ্ধের অবদান ইত্যাদি বিভিন্ন বিষয়ে আয়োজন করা হয়ে থাকে বিষয়ভিত্তিক সেমিনার ও সিম্পোজিয়াম। এইসকল সেমিনার-সিম্পোজিয়ামে দেশে-বিদেশের স্বনামধন্য লেখক, গবেষক,শিক্ষাবিদ,পরিবেশবিদ,

 শিল্পী-সাহিত্যিকবৃন্দ তাদের মূল্যবান বক্তব্য ও পরামর্শ প্রদান করে থাকেন। তারই আলোকে বেরিয়ে আসে বিভিন্ন ক্ষেত্রে বৃহত্তর সিলেটবাসীদের অবদান এবং একই সাথে সীমাবদ্ধতার দিকগুলি। তারই আলোকে ব্যক্তি ও সামষ্টিক উদ্যোগকে উৎসাহিত করা এবং গণসচেতনতা সৃষ্টির মাধ্যমে সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করা ও এই সম্মেলনের  অন্যতম লক্ষ্য।           

কোন কোন দেশ থেকে প্রতিনিধিরা আসছেন?- প্রশ্ন করা হলে তমাল জানান,   আমরা বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে থাকা সিলেটি ভাষা ভাষী স্বনামধন্য কবি,সাহিত্যিক, শিল্পী, সাংবাদিক,শিক্ষাবিদ, পরিবেশবিদ অর্থনীতিবিদ,গবেষক দের সাথে যোগাযোগ করে চলেছি। আমাদের বিশ্বাস উল্লেখযোগ্যসংখ্যক স্বনামধন্য ব্যক্তিত্ব কে আমরা এ সম্মেলনে সম্পৃক্ত করতে পারব।‌    ‌‌  

সিলেটের আজকের প্রজন্ম যারা বর্হি বিশ্বে ছড়িয়ে আছেন তারা কতটা আগ্রহ দেখাচ্ছেন এই প্রচেষ্ঠাকে- জানতে চাওয়া হলে জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সভাপতি বলেন,আজকের বিশ্বায়নের যুগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের বদৌলতে অপসংস্কৃতির করাল গ্রাসে নিমজ্জিত সুস্থ সংস্কৃতি এবং তারই ছোবলে বিপদগ্রস্ত হতে যাচ্ছে আমাদের যুব সমাজ প্রবাসে বেড়ে ওঠা নতুন প্রজন্ম হারাতে বসেছে তার শেকড়ের সংযোগ। বিশ্ব সিলেট সম্মেলন সিলেটি ভাষাভাষী জনগোষ্ঠীকে প্রজন্ম থেকে প্রজন্মে তার শেকড়ের সাথে পরিচিত রাখার প্রচেষ্টা এবং ধরে রাখার এক মহতি প্রয়াস। আমাদের প্রচেষ্টা থাকবে উল্লেখযোগ্যসংখ্যক প্রবাসে বেড়ে ওঠা নতুন প্রজন্মকে সম্মেলনে সম্পৃক্ত করার।


সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে
Designed & Developed by Tiger Cage Technology
উপরে যান