বিশ্ব সিলেট সম্মেলন :রাশেদা কে চৌধুরির সাথে মতবিনিময়

Sun, Mar 4, 2018 10:52 PM

বিশ্ব সিলেট সম্মেলন :রাশেদা কে চৌধুরির সাথে  মতবিনিময়

নতুনদেশ ডটকম:  বিশিষ্ট উন্নয়নকর্মী ও সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা রাশেদা কে. চৌধুরির সাথে মত বিনিময় করেন টরন্টোতে অনুষ্ঠিতব্য বিশ্ব সিলেট সম্মেলনের কর্মকর্তাবৃন্দ। গত ২৬ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় স্থানীয় মদিনা গ্রিল রেষ্টুরেন্টে এ মতবিনিময় সভার আয়োজন করে জালালাবাদ এসোসিয়েশন অব টরন্টো। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মাহবুব চৌধুরি রণি ফুলের তোড়া দিয়ে শুভেচ্ছা জানান সিলেটের এ কৃতি সন্তানকে।

উপস্থিত সবাইকে শুভেচ্ছা জানিয়ে রাশেদা চৌধুরি আয়োজকদের উদ্দেশ্যে বলেন, আসন্ন বিশ্ব সিলেট সম্মেলনকে সাফল্যমন্ডিত করতে তার পক্ষ থেকে সর্বাত্মক সহযোগিতা থাকবে। সম্মেলনের শ্লোগান 'সিলেট আমার অহঙ্কার' তাঁর ভাল লেগেছে জানিয়ে তিনি বলেন, সম্মেলনে গান বাজনা করে সবাই যার যার ঘরে ফিরে যাবে সেটা উদ্দেশ্য নয়। এ সম্মেলনে অর্থবহ কিছু করতে হবে যা সিলেটের উন্নয়ণে কাজে লাগবে। তিনি জানান, ইউনেস্কো কর্তৃক স্বীকৃত বিশ্ব হ্যারিটেজ 'রাতারগুল' আজ বিপন্ন। পরিবেশ দূষণের ফলে জাফলং-এর অবস্থাও শোচনীয়। পর্যটকরা এখন এসব জায়গায় যেতে চাচ্ছে না। অথচ এগুলো আমাদের সম্ভাবনাময় পর্যটনকেন্দ্র।

 বিশিষ্ট এ শিক্ষাবিদ বলেন, সিলেটে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়, অর্থ সবই আছে কিন্তু মান নেই, শিক্ষক নেই; শৃঙ্খলা নেই। যেসব ক্ষেত্রে সিলেট পিছিয়ে আছে সেগুলো নিয়ে কাজ করতে হবে। তিনি বলেন, সিলেটের উন্নয়নে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। তিনি বলেন, সিলেট এগিয়ে যাওয়া মানে বাংলাদেশ এগিয়ে যাওয়া।

আসন্ন সম্মেলনে যে সব কর্মসূচি হাতে নেয়া হয়েছে তার প্রশংসা করে তিনি বলেন, বিশ্ব সিলেট সম্মেলনের উদ্দেশ্য এটাই। তিনি সিলেট, সুনামগঞ্জ, হবিগঞ্জ ও মৌলভীবাজারের চার সিটি কর্পোরেশনের মেয়রসহ বৃহত্তর সিলেটের সকল মন্ত্রী, সংসদ সদস্য এবং গুণীজন যারা দেশে ও দেশের বাইরে রয়েছেন তাদের সকলকে সম্মেলনে আমন্ত্রণ জানানোর অনুরোধ জানান। পরিশেষে তিনি বলেন, হাজার বছরের ঐতিহ্যবাহী সিলেট বরাবরই অসাম্প্রদায়িক; এ চেতনা ধরে রাখতে হবে।

ভোরের আলো সম্পাদক খন্দকার আহাদ জানান, ইতিমধ্যে সিলেট চেম্বার অব কমার্স-এর কর্মকর্তাবৃন্দকে মৌখিক আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে এবং বিশ্ব সিলেট সম্মেলনে তারা অংশগ্রহণ করার ইচ্ছে প্রকাশ করেছেন। এছাড়াও সম্মেলনে সিলেট বিভাগের বিভিন্ন উপজেলা চেয়ারম্যানসহ শিল্পপতি-ব্যবসায়ীদেরও আমন্ত্রণ জানানোর পরিকল্পনা রয়েছে।

সংগঠনের সভাপতি দেবব্রত দে তমাল অতিথিকে সবিশেষ তথ্য ও গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ দেয়ার জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, সম্মেলনকে সাফল্যমন্ডিত করতে জালালাবাদ এসোসিয়েশন অব টরন্টোর প্রতিটি সদস্য বদ্ধপরিকর। তিনি দৃঢ়তার সাথে বলেন, এ সম্মেলন সিলেটবাসীর কাছে ঊদাহরণ হিসেবে থাকবে।

মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন, জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি রেশাদ চৌধুরি, রোটারি ক্লাব অব ড্যানফোর্থের সভাপতি মঈন চৌধুরি, দেশে বিদেশে সম্পাদক নজরুল মিন্টো, সৈয়দ আফসার, মিজানুর চৌধুরি রাহি, মুজিব হক, আহমেদ শিপলু, ফাইজুল চৌধুরি, আব্দুল হামিদ, জুমেল চৌধুরি, সুশীতল চৌধুরি, হাবিব চৌধুরি মারুফ, এজাজ চৌধুরি, ফারুক আহমেদ, মকবুল হোসেন মঞ্জু, জাকারিয়া চৌধুরি, মানিক চন্দ, রাসেল রহমান প্রমুখ। সবশেষে নৈশভোজের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে।

উল্লেখ্য, আগামী ১ ও ২ সেপ্টেম্বর টরন্টোর গ্র্যান্ড প্যালেস ব্যাঙ্কুয়েট এর কমপ্লেক্সে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বিশ্ব সিলেট সম্মেলন। বিজ্ঞপ্তি।


সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে
Designed & Developed by Tiger Cage Technology
উপরে যান