গাড়ি নম্বর '১৯৭১'

Sun, Dec 24, 2017 1:37 AM

গাড়ি নম্বর '১৯৭১'

নতুনদেশ ডটকম: লেবাননে  জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী বাহিনী কর্তৃক ব্যবহৃত একটি গাড়ির লাইসেন্স প্লেট নম্বর ১৯৭১। প্রাডো মডেলের  এই গাড়িটি লেবাননে ব্যবহার করেন কমান্ডার শরীফ মোহাম্মদ মাহমুদুর রহমান নামে  বাংলাদেশ নৌবাহিনীর  একজন কর্মকর্তা।  বর্তমানে লেবাননে ইউনিফিলের নেভাল অপারেশন সেন্টারের প্রধান হিসেবে তিনি  দায়িত্ব পালন করছেন। লেবানন থেকে দৈনিক সমকালের প্রতিনিধি সাহাদাত হোসেন পরশ এ নিয়ে সমকালে বিস্তারিত একটি প্রতিবেদন করেছেন।

লেবাননে শান্তিরক্ষীদের গাড়ির লাইসেন্স প্লেটে লেখা থাকে  ‘'ইউনিফিল'। এর নিচেই  থাকে গাড়ির প্লেট নম্বর। এই গাড়িটির প্লেটে লেখা আছে ‘ইউনিফিলের -১৯৭১’ । ইউনিফিল হচ্ছে  ইউনাইটেড নেশনস ইন্টিরিম ফোর্স ইন লেবানন।

জাতিসংঘের মালিকানাধীন ১৯৭১ নম্বর প্লেটের গাড়ির ব্যাপারে জানতে চাইলে কমান্ডার শরীফ মোহাম্মদ মাহমুদুর রহমান সমকালকে বললেন, শান্তিরক্ষী হিসেবে এমন নম্বরের গাড়ি ব্যবহারের সুযোগ পাওয়া অত্যন্ত প্রেরণাদায়ক। হয়তো নম্বরটি জাতিসংঘের গাড়িতে কাকতালীয়ভাবে এসেছে, যা আবার বাঙালি কর্মকর্তার নামে বরাদ্দ। তবে এটা অত্যন্ত গৌরব ও উদ্দীপনামূলক।

তিনি আরও বলেন, পরিবার-পরিজন দেশের মাটিতে রেখে এসে বিদেশে থাকলে স্বাভাবিক কারণে অনেক সময় মন খারাপ থাকে। এমন পরিস্থিতিতে কখনও ১৯৭১ সংখ্যার গাড়ি নিয়ে কোথাও একটু ঘুরতে বের হলেই মনটা ভালো হয়ে যায়।

তার পূর্বসূরি আরেক বাঙালি শান্তিরক্ষী এই গাড়ি আগে ব্যবহার করতেন। ওই কর্মকর্তা শান্তিরক্ষা মিশন সম্পন্ন করে দেশে যাওয়ার পর গৌরবজনক নম্বর প্লেটের গাড়িটি পান কমান্ডার শরীফ। লেবাননে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে বর্তমানে তিনি নেভাল অপারেশন সেন্টারের যে পদে কর্মরত, তা বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীদের জন্য বরাদ্দ। তাই শরীফ মিশন শেষ করে যাওয়ার পরও পরবর্তী সময়ে ওই পদে আরেকজন বাঙালি কর্মকর্তা এসে একই নম্বরের গাড়ি ব্যবহারের সুযোগ পাবেন।


External links are provided for reference purposes. This website is not responsible for the content of externel/internal sites.
উপরে যান