নির্বাচনে অংশগ্রহণ ছাড়া বিএনপির উপায় নেই : রেহমান সোবহান

Sat, Dec 16, 2017 4:53 PM

নির্বাচনে অংশগ্রহণ ছাড়া বিএনপির  উপায় নেই : রেহমান সোবহান

 নতুনদেশ ডটকম: বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ, সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগের সভাপতি অধ্যাপক রেহমান সোবহান বলেছেন, যে কোনো পরিস্থিতে আগামী নির্বাচনে অংশগ্রহণ ছাড়া বিএনপির কোনো উপায় নেই। ঢাকার দৈনিক প্রথম আলোকে দেওয়া বিশেষ সাক্ষাতকারে খ্যাতিমান অর্থনীতিবিদ এই মন্তব্য করেন।

রেহমান সোবহান বলেন, আমি এটা কল্পনা করতে পারি না যে বিএনপি ২০১৪ সালের নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করার ভুল থেকে শিক্ষা নেয়নি। বর্তমানে তারা সাংগঠনিকভাবে ২০১৪ সালের চেয়েও দুর্বল, ফলে যেকোনো পরিস্থিতিতে নির্বাচনে অংশগ্রহণ ছাড়া তাদের উপায় নেই। আর নির্বাচনে ভবিষ্যদ্বাণী করা যায় না এমন কিছুও ঘটে থাকে। তাই যে দলের গণভিত্তি আছে কিন্তু আন্দোলন করার ক্ষমতা নেই, তাদের নির্বাচনে অংশগ্রহণ করা উচিত।

আগামী নির্বাচন নিয়ে ক্ষমতাসীন দল ও প্রধান বিরোধী দলের অবস্থান পরস্পরবিরোধী। সমাধান কী?- এমন প্রশ্নের জবাবে অধ্যাপক রেহমান সোবহান বলেন, আগামী নির্বাচন নিয়ে আশাপ্রদ কিছু দেখছি না। এর কারণগুলো দৃশ্যমান, কিন্তু আমার পক্ষে তা বোঝা কঠিন। দেখা যাচ্ছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ আট বছরের বেশি সময় ধরে বিরোধী দলের কার্যকর বিরোধিতা ছাড়াই ক্ষমতায় আছে। শক্তিশালী এক নেতা আওয়ামী লীগের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। তিনি সমস্যাগুলো ভালোভাবেই বোঝেন, আর কীভাবে তা সামাল দিতে হয়, তাও জানেন। এ ছাড়া বর্তমান নেতৃত্বের জমানায় অর্থনীতি ভালো করেছে। উন্নয়ন কর্মকাণ্ড দৃশ্যমান। আর নিজেদের সম্পদে পদ্মা সেতু নির্মাণের সিদ্ধান্তও প্রশংসিত হয়েছে। এর বিপরীতে বিএনপি তিন বছর ধরে আত্মরক্ষামূলক অবস্থানে আছে। দলটির অনেক নেতা-কর্মী কারাগারে বা পালিয়ে আছেন। দলটির অধিকাংশ নেতা গ্রেপ্তারের আশঙ্কায় আছেন। দলটিকে জনসভা করার অনুমতিও তেমন একটা দেওয়া হয়নি। সে কারণে তারা জনসমক্ষে তেমন একটা দৃশ্যমান নয়। এ ধরনের ভারসাম্যহীন পরিস্থিতিতে ক্ষমতাসীন দলের এই আশঙ্কার কারণ নেই যে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হলে তারা জিততে পারবে না। ক্ষমতাসীন দলকে এগিয়ে গিয়ে বিএনপি ও তার মিত্রদের নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে উৎসাহিত করা উচিত। যতটা সম্ভব হয় তাদের উদ্বেগ আমলে নিতে হবে; তাদের উৎসাহ দিতেই এটা করতে হবে।

 

তিনি বলেন,নির্বাচনী প্রক্রিয়ার বিশ্বাসযোগ্যতা পুনরুদ্ধারে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনে বিরোধী পক্ষের পূর্ণাঙ্গ অংশগ্রহণ খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আর সেই ফলাফল নিয়ে যেন কেউ চ্যালেঞ্জ করতে না পারে, তাও নিশ্চিত করতে হবে। যে দলের গণতান্ত্রিক সংগ্রামে নেতৃত্ব দেওয়ার ঐতিহ্য আছে, যারা সব সময় প্রতিযোগিতাপূর্ণ, অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসায় বিশ্বাসী, তাদের এমন নির্বাচনী বিজয় অর্জন করতে হবে, যার গ্রহণযোগ্যতা কেউ চ্যালেঞ্জ করতে না পারে।

সাক্ষাতকারের বিস্তারিত পড়ুন এইখানে


External links are provided for reference purposes. This website is not responsible for the content of externel/internal sites.
উপরে যান