আনিসুল হকের চলে যাওয়া

Thu, Nov 30, 2017 10:53 PM

আনিসুল হকের চলে যাওয়া

ফরহাদ টিটো: একজন সব মানুষের প্রিয় আনিসুল হককে দেখেনি এই প্রজন্মের বাংলাদেশ । এই বাংলাদেশ আনিসুল হককে চেনে ঢাকার মেয়র হিশেবে, এখনকার মানুষ জানে তাকে সফল ব্যবসায়ী হিশেবে । এবং এই দুই অবস্থানেই বিতর্কিত হয়েছিলেন তিনি বহুবার.. কারনে বা অকারনে । আমাদের দেশে তো কোনো রাজনৈতিক দলে নাম লেখালেই আপনি খারাপ হয়ে গেলেন প্রতিপক্ষ আর বিরোধী দলের কাছে । আপনার খুব ভালো আর ভালো দিকগুলোও ঢাকা পড়ে যায় তাদের চোখে ।

একটা ফিল্ডে কখনোই বিতর্কিত ছিলেন না আনিসুল হক । তা হলো, উপস্থাপনা । একজন টিভি উপস্থাপক হিশেবে তার সময়ে তার প্রতিদ্বন্দ্বী আসলে কেউই ছিলো না । কারনটা পরিষ্কার । উপস্থাপনার দুই গুরুজন আব্দুল্লাহ আবু সায়ীদ, ফজলে লোহানীর দু'জনের একজনও তার ধারার উপস্থাপক ছিলেন না । উপস্থাপনায় তখনকার আরো দুই বড় নাম আবু হেনা মোস্তফা কামাল বা আসাদ চৌধুরীরাও হেঁটেছিলেন উপস্থাপনার চেনা ধারায় । প্রায় একই সময়ের দুই খ্যাতিমান রায়হান গফুর বা রেজাউর রহমান থেকেও ভিন্ন ছিলেন আনিসুল হক তার স্বতন্ত্র ধারায় । পরের প্রজন্মের দিকপাল উপস্থাপক হানিফ সংকেত বা জনপ্রিয় আরেকজন আব্দুর নূর তুষারদের কেউই আনিসুল হকের পথে হাঁটতে পারেন নি বা হাঁটতে চাননি ।

আনিসুল হক তাহলে ব্যতিক্রমী ছিলেন কি কারনে ? যারা আশির দশকে দেশের একমাত্র টেলিভিশন চ্যানেল বিটিভি দেখতেন তারা ভালো জানেন। 'অন্তরালে' নামের একটা লোকপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠানের সঞ্চালক ছিলেন তখন তিনি । প্রতি এপিসোডে আলাদা বিষয় নিয়ে এসে কথা বলতে বলতে কি সহজেই আবেগরুদ্ধ করে চলে যেতেন সবাইকে । আমার চোখে বাংলাদেশের ইতিহাসে সর্বকাল সেরা সেন্টিমেন্টাল (আবেগী) উপস্থাপক ছিলেন আনিসুল হক । কথা বলতে বলতে কি করে যে আমাদের চোখের কোনায় পানি এনে দিয়ে চলে যেতেন তিনি !

আজকেও আবার তার জন্য চোখের পানি এসে ভিড় করছে আমার । তবে তার কথা শুনে না, উনি আর কোনোদিন কথা বলতে পারবেন না জেনে । মৃত্যু তার সব অধিকার হরণ করে নিয়ে গেছে যে !

উপস্থাপনা কেন, তিনি আর ঢেলে সাজাতে পারবেন না ঢাকাকে... আর কোনোদিন । পারবেন না ব্যবসায়ী সমাজের হাল ধরতে । পারবেন না ভুবনজয়ী সেই হাসিতে সবার মন সিক্ত করতে ।

উপস্থাপনা শিল্পে আমিও জড়িয়ে গেছি অনেক বছর । বিদেশে বাঙালিদের অনেক বড় বড় অনুষ্ঠানে মাইক্রোফোন হাতে নিয়েছি । টেনে নিয়ে গেছি অনেক অনুষ্ঠান দর্শকশ্রোতার প্রত্যাশার কাছাকাছি । এই জগতে একটা স্বপ্নও ছিলো আমার মনের একান্তে...কোনো একদিন আনিস ভাই'র পাশে দাঁড়াবো মঞ্চে । এক অনুষ্ঠানের জন্য হলেও, অথবা এক ঝলক।

পরপারে যদি দেখা হয়ে যায় কোনোদিন তার সংগে অথবা অন্য জনমে.. মন খুলে বলে দেবো তাকে আমার অভীপ্সার কথা ।

ভালো থাকবেন পৃথিবীর অন্য পারে...প্রিয় উপস্থাপক !


External links are provided for reference purposes. This website is not responsible for the content of externel/internal sites.
উপরে যান