৪ নভেম্বর বাচনিকের ‘বহ্নিশিখা’, আলাদা কিছু করার প্রত্যয়

Sat, Oct 28, 2017 10:47 PM

৪ নভেম্বর বাচনিকের ‘বহ্নিশিখা’, আলাদা কিছু করার প্রত্যয়

নতুনদেশ ডটকম:  ঠিক হাটি হাটি পা পা করে নয়, অনেকটা শব্দ করে, জানান দিয়েই পাঁচ বছরে পা রাখছে টরন্টোর জনপ্রিয় আবৃত্তি সংগঠন ‘বাচনিক’।  আর এই পাঁচ বছরে পা রাখা সংগঠনটি আগামী ৪ নভেম্বর দর্শক শ্রোতাদের মুখোমুখি হচ্ছে কবিতার ঢালি সাজিয়ে।

এটি কি ৪র্থ বর্ষপূর্তির উদযাপন? কিংবা পঞ্চম বর্ষকে বরন অনুষ্ঠান? বাচনিকের প্রধান মেরী  রাশেদীন পুরো বিষয়টাকে দেখেন ভিন্নভাবে। তাঁর ভাষায়, ‘বর্ষপূর্তি না বলে বাচনিকের বার্ষিক আবৃত্তির অনুষ্ঠান বললে সঠিক হয়। বাচনিক যেহেতু মূলত আবৃত্তির সংগঠন তাই অন্যান্য সংগঠনের সাথে বা কোনো অনুষ্ঠানের আমন্ত্রণে আবৃত্তি পরিবেশনা করলেও বাচনিক নিজেদের বার্ষিক আবৃত্তির  পরিবেশনার আয়োজন করে আসছে। এবারও এর  ব্যতিক্রম নয়।‘

বাচনিকের বার্ষিক এই অনুষ্ঠানটি হবে আগামী ৪ নভেম্বর সন্ধ্যা ৭টায় ১৭৮৫ ফিঞ্চ এভেনিউ ওয়েষ্ট,নর্থইয়র্কে অবস্থিত  ইয়র্কউড লাইব্রেরী থিয়েটারে । এতে কোনো প্রবেশ মূল্য রাখা হয়নি।  বাচনিকের  আবৃত্তিকারদের মধ্যে কবিতা নিয়ে মঞ্চে আসবেন রেজা অনিরুদ্ধ, জাহানারা বুলা,মেহরাব রহমান, হোসনে আরা জেমী,রাশেদা মুনির, সুমী রহমান,কাজী হেলাল, আসমা হক,এলিনা মিতা রোজারিও,ফারহানা আহমেদ, ম্যাক আজাদ,আশরাফুন্নাহার, কামরুন্নাহার  হীরা এবং মেরী রাশেদীন।

পাঁচ বছর পথচলার অনুভূতি আর আসন্ন বার্ষিক  আয়োজন নিয়ে মেরি রাশেদীনের মুখামুখি হয়েছিলো নতুন দেশ। চার বছর পেরিয়ে এসে পেছনের স্মৃতির দিকে তাকান আবৃত্তি শিল্পী মেরী রাশেদীন।‘এই বছর ৪ আগের কথা ...ভীষণ ভাবে মনে তোলপাড় করতে লাগলো আর জেদ চেপে গেল কবিতার বন্ধুদের নিয়ে একটি অনুষ্ঠান করবো । আমার সকল সতীর্থ আমার উপর ভরসা করলো এবং তারা ৪ ঘণ্টার কবিতার অনুষ্ঠান করলো । আমরা একই মঞ্চে টানা ৪ ঘন্টা কবিতা আবৃত্তি করলাম । তখন হয়তো সত্যি "পাগল" ছিলাম কবিতার প্রতি । সেই অনুষ্ঠান থেকেই "বাচনিক" এর বীজ রোপণ। শুরুর সময়কার অনেক বন্ধু এখন আমাদের সাথে নেই , কিছু নতুন বন্ধু যোগ হয়েছেন । এই সবাই মিলে এখন আমাদের বাচনিক পঞ্চম বছরে চলছে ...।‘

প্রশ্ন ছিলো- কমিউনিটিতে তো  অনেক সংগঠন, তারপরও আলাদা করে বাচনিকের দরকার ছিলো কি?- মেরী রাশেদীনের জবাব,” আলাদা একটি সংগঠন দরকার  ছিল আলাদা মেজাজের মেজাজের অনুষ্ঠান উপহার দেওয়ার জন্য। প্রশ্নের মধ্যে আলাদা শব্দটি থাকায় আমিও আলাদা ব্যবহার করলাম। কিন্তু আসলে আলাদা না বলে প্রয়োজনীয় বিষয় নির্বাচনে বাচনিক বিশেষভাবে গুরুত্ব আরোপ করছে। এই জন্যই আলাদা  মনে হয়। মূলত বাচনিক আলাদা নয়। বাচনিক চলমান সময়ের সাথে যুক্ত।‘

 বিগত সময়ের পথচলার বিবরন তুলে তিনি বলেন, পাঁচ বছরে আমরা চেষ্টা করেছি এই শহরের সাংস্কৃতিক আন্দোলনের সাথে যুক্ত থেকে নিজেদেরকে আলাদা পরিচয়ে তুলে ধরতে। সেটি আমাদের দায়বদ্ধতায়, বিষয় বৈচিত্রে ও ঐতিহ্য সন্ধানের সাথে সাথে সমকালীন ভাবনার প্রয়োগে।

মেরী বলেন, বাচনিকের জন্ম হয়েছিল আবৃত্তি শিল্পীদের  একটি সংগঠন হিসেবে। সেই লক্ষেই বাচনিক কাজ করছে। কবিতা আবৃত্তির সাথে কবিতার ছন্দ, উচ্চারণ নিয়ে কর্মশালা করছে।  তিনি বলেন, আবৃত্তি হলো বাচনিকের আয়না। কিন্তু আয়নায়ও কারো প্রতিবিম্ব পুরোপুরিভাবে দেখা যায়না। আমরাও নিজেদের যেটুকু দেখছি তা দিয়ে মূল্যায়ন করাটা ঠিক হবেনা। তবে, বাচনিকের প্রতিটি সদস্যের উদ্দীপনার সাথে সাথে চেষ্টাটা আছে। আমাদের আরো চেষ্টা করা উচিৎ। আরো নির্ভুল হওয়া উচিৎ। বাকীটুকু আপনাদের চোখে।

৪ নভেম্বর আপনারা আসলে কি করছেন?- জানতে চাওয়া হয়েছিলো মেরী রাশেদীনের কাছে। তিনি  বলেন,এবারের আমাদের অনুষ্ঠানে  সমকালীন বিশ্বে বিশেষত বাংলাদেশে  আলোচিত একটি  বিষয়কে বেছে নিয়েছি। সারা বিশ্বে আজ নারী নিগৃহীত হচ্ছেন। কিন্তু এর মধ্যেও নারী সংগ্রামে অবতীর্ণ হয়ে সাফল্য ছিনিয়ে আনছেন। এই নারীর স্বপ্ন, সংগ্রাম ও সাফল্য নিয়ে আমাদের এবারের অনুষ্ঠানের  শিরোনাম 'বহ্নিশিখা'

মেরী জানান, অনুষ্ঠান শুরু হবে সন্ধ্যা সাতটায়। মঙ্গল প্রদীপ জ্বালিয়ে অনুষ্ঠান উদ্বোধন করবেন কবি আসাদ চৌধুরী ও ব্যারিস্টার চয়নিকা দত্ত। আমরা এ বছর থেকে 'বাচনিক সম্মাননা' প্রবর্তন করেছি। এবার আমরা কবি ফেরদৌস নাহারের হাতে এই সম্মাননা তুলে দেবো। মঙ্গল প্রদীপ প্রজ্বলনের পর বাচনিক সম্মাননা তুলে দেওয়ার পর্ব। এই পর্বে কবি ফেরদৌস নাহার সম্পর্কে পরিচিতি ও কথা। অতঃপর তাঁর হাতে সম্মাননা তুলে দেবেন কবি আসাদ চৌধুরী।

দর্শক শ্রোতাদের উদ্দেশ্যে বাচনিকের প্রধান বলেন, দর্শক শ্রোতাদের অনুরোধ করি এবারের আমাদের পরিবেশনা বহ্নিশিখা উপভোগ করতে আসুন। একটি অনবদ্য অনুষ্ঠানের সাক্ষী থাকুন। 


সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে
External links are provided for reference purposes. This website is not responsible for the content of externel/internal sites.
উপরে যান