পরানডা ঠান্ডা হয়্যা গেল

Wed, Aug 30, 2017 12:33 AM

পরানডা ঠান্ডা হয়্যা গেল

 

বগুড়ার সারিয়াকান্দি উপজেলায় যমুনা নদীর তীরে ত্রাণের জন্য আসা সোনাভান বেওয়া ঈদের আগে নতুন শাড়িটা পেয়ে আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়েন। তিনি বলেন, ‘সোয়ামি মরে গেচে ম্যালা দিন আগে। তিন কুলত কেউ নাই। সোয়ামি মরে যাওয়ার পর ঈদত আর লতুন শাড়ি পিন্দিবার পারিনি। শাড়িটা পায়্যা হামার পরানডা ঠান্ডা হয়্যা গেল।’

গতকাল মঙ্গলবার দেশের ১২টি স্থানে প্রথম আলো ট্রাস্টের উদ্যোগে বন্যাদুর্গত লোকজনের মধ্যে শাড়ি ও লুঙ্গি বিতরণ করেছেন বন্ধুসভার সদস্যরা।

বগুড়া

সোনাভানের মতো সারিয়াকান্দির দুর্গম চর কাজলা ইউনিয়নের চর ঘাগুয়ার ৯০ জন, যমুনায় বিলীন পাকুরিয়ার চরের ৯০ জন এবং কর্নিবাড়ি ইউনিয়নের শোনপচা চরের ২০ জন হৃতদরিদ্র নারী-পুরুষের হাতে গতকাল একটি করে শাড়ি-লুঙ্গি তুলে দেওয়া হয়।

দিনাজপুর

‘দুইকোনা মোর শাড়ি আছে, দুটাই ছিঁড়া। স্বামী নাই, মানুষের বাড়িত কাম করি কুনমতে দিন চলি যায়। কাহো মোক কাপড় কিনি দিবারও নাই। এই নয়া শাড়িকোনা ঈদের দিনোত পিন্দিবা পারিম।’ কথাগুলো বলছিলেন বীরগঞ্জের সুজালপুরের স্বামীহারা সুফিয়া রানী।

দিনাজপুরে গতকাল মঙ্গলবার বীরগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চত্বরে উপজেলার নিজপাড়া, সুজালপুর, হরিবাসরপাড়া, খালপাড়াসহ আটটি গ্রামের ১০০ পরিবারের মধ্যে শাড়ি ও লুঙ্গি বিতরণ করা হয়েছে।

চিরিরবন্দর (দিনাজপুর)

দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলার বন্যাদুর্গত এলাকার ২০০ নারী-পুরুষের মধ্যে গতকাল মঙ্গলবার সকালটা ছিল অন্য রকম। উপজেলার বেলতলী বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ে দেওয়া নতুন শাড়ি ও লুঙ্গি পেয়ে বিবর্ণ মুখে উঠেছিল রঙিন রেখা।

 বিতরণকালে উপস্থিত ছিলেন বেলতলী উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোরশেদ উল আলম, আফসার হোসেন, নুর আলম প্রমুখ।

ঠাকুরগাঁও

গতকাল ঠাকুরগাঁও পৌরসভার টিকিয়াপাড়া, এডিসি বস্তি, জলেশ্বরীতলা, বেলতলা, খালপাড়া মহল্লা এবং সদর উপজেলার সালন্দর, আকচা, নারগুন ইউনিয়নের পাঁচটি গ্রামের ১৫০টি পরিবারের মধ্যে শাড়ি ও লুঙ্গি বিতরণ করা হয়।

 জেলা প্রশাসক মো. আবদুল আওয়াল বন্যাদুর্গত মানুষের হাতে ঈদের কাপড় তুলে দিয়ে কার্যক্রমের সূচনা করেন। সে সময় ঠাকুরগাঁওয়ের সিভিল সার্জন আবু মো. খয়রুল কবীর, ইকো পাঠশালা অ্যান্ড কলেজের চেয়ারম্যান মুহম্মদ শহীদ উজ জামান, পৌরসভার সংরক্ষিত ন
ারী কাউন্সিলর দ্রৌপদী আগরওয়ালা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী)

গতকাল উপজেলার উজানচর, দৌলতদিয়া, ছোট ভাকলা ইউনিয়ন এবং পৌরসভা এলাকার ১০৫টি পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয় নতুন শাড়ি ও লুঙ্গি।

শাড়ি ও লুঙ্গি বিতরণকালে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় মুরব্বি মো. আজিজুল হক, বন্ধুসভার উপদেষ্টা অধ্যাপক কামরুল ইসলাম, সভাপতি শেখর আহম্মেদ বাবু প্রমুখ।

জামালপুর

গতকাল মেলান্দহ উপজেলার মাহমুদপুর ইউনিয়নের রুকনাইপাড়া ও ইসলামপুর উপজেলার কড়ইতার গ্রামের বন্যাদুর্গত ৩০০ লোকের মধ্যে শাড়ি ও লুঙ্গি বিতরণ করা হয়।

মেলান্দহ উপজেলার রুকনাইপাড়া গ্রামের সাজেদা বেগম বলেন, ‘টানা দুই সপ্তাহ বানের পানির মধ্যে ছিলাম। একটানে বান আসায় ঘর ভাসায়। ঘর থেকে কোনো কিছুই বার করতে পারি নাই। ঘরের মধ্য দিয়ে হোত (স্রোত) গেছে। পরনের সকল কাপড় ভেসে গেছে। এই কাপড় পেয়ে অনেক দিন পড়তে পারুম।’

বাগমারা (রাজশাহী)

শারীরিক প্রতিবন্ধী ইউসুফ আলী স্ত্রীর জন্য নতুন শাড়ি পেয়ে বলেন, ‘বানে সব শ্যাষ হইয়্যা গেছে, তোমরা আমার বউয়ের জন্য নতুন শাড়ি দিলেন, এটাই আমার ঈদের আনন্দ।’ নতুন শাড়ি পেয়ে তাঁর মতো খুশি হন সবাই।

গতকাল বন্যাকবলিত উপজেলার নরদাশ ইউনিয়নের পূর্ব দৌলতপুর, হুলিখালী ও গোড়সার গ্রামের ১০০ জন নারী ও পুরুষের মধ্যে শাড়ি-লুঙ্গি বিতরণ করা হয়। ৮০ জন নারীকে নতুন শাড়ি এবং ২০ জন পুরুষকে একটি করে নতুন লুঙ্গি দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া উপস্থিত শিশুদের মধ্যে শিশুখাদ্যও বিতরণ করা হয়।

নাটোর

১০০ জন নারী-পুরুষকে গতকাল নতুন শাড়ি ও লুঙ্গি দেওয়া হয়েছে। ত্রাণগ্রহীতাদের মধ্যে ৬৩ জন বাঁশিলা গুচ্ছগ্রামের বাসিন্দা। এখানকার অনেকেই ভিক্ষা করে জীবন যাপন করেন।

উপস্থিত সবাইকে প্রথমে চিড়া ও বিস্কুট দেওয়া হয়। পরে এক এক করে সবার হাতে নতুন শাড়ি-লুঙ্গি তুলে দেন নাটোর বন্ধুসভার উপদেষ্টা ও লাঠি সমিতির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আবদুস সালাম। এ সময় স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আবদুল মালেক ব্যাপারী, গুচ্ছগ্রামের প্রধান সাধন চন্দ্র মণ্ডল, ভিক্ষুক সমিতির সভাপতি তালেব আলী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এ ছাড়া গত সোমবার ইউনিভার্সিটি অব ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি নাটোরের সিংড়া উপজেলার বন্যাদুর্গত ২০০ মানুষের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করেছে। ত্রাণ বিতরণকালে ইউনিভার্সিটির প্রক্টর মো. নাসির উদ্দিন, ছাত্রকল্যাণ উপদেষ্টা গোলাম সারওয়ার, বন্ধুসভার উপদেষ্টা সৈয়দ নাজমুল হুদা, জাকারিয়া বুলবুল, সভাপতি মোহাইমিনুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

কুড়িগ্রাম

কুড়িগ্রাম থেকে ৩৫ কিলোমিটার দূরে ফুলবাড়ী উপজেলার শিমুলবাড়ী ইউনিয়নের সীমান্তসংলগ্ন জতীন্দ্র নারায়ণ চরে গতকাল বন্যাদুর্গত মানুষের মধ্যে ১০০ শাড়ি-লুঙ্গি ও ৩০০ পরিবারের মধ্যে চাল, ডাল, লবণ, আলু, তেল, পেঁয়াজ বিতরণ করা হয়। বারমাসি নদীর তীরে ত্রাণ বিতরণের সময় উপস্থিত ছিলেন মিয়াপাড়া সরকারি প্রথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মিজানুর রহমান, স্থানীয় মুরব্বি মোহাম্মদ আলী প্রমুখ।

সরিষাবাড়ী (জামালপুর)

জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলার সাতপোয়া ইউনিয়নের চর রৌহা; কামরাবাদ ইউনিয়নের শুয়াকৈর, সোনাকান্দহ, সাধিনাবাড়ি; ভাটারা ইউনিয়নের ভেবলা, জয়নগর, মহিষাবাদুরিয়া এবং পৌরসভার শিমলাবাজার, তাড়িয়াপাড়া, কামরাবাদ ও মাইজবাড়ি গ্রামের বন্যার্ত ১০০ জন নারীর মধ্যে গতকাল শাড়ি বিতরণ করা হয়েছে। শাড়ি বিতরণে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাইয়েদ এ জেড মোরশেদ আলী, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা হামিদুল হক, সরিষাবাড়ী পাইলট গালর্স স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ সৈয়দ আবদুর রউফ, প্রথম আলো সরিষাবাড়ী বন্ধুসভার উপদেষ্টা মঞ্জরুল ইসলাম প্রমুখ।

জয়পুরহাট

জয়পুরহাট জেলার সদর ও ক্ষেতলাল উপজেলার বন্যাকবলিত আটটি গ্রামের ১৫০ জন নারী ও পুরুষের মধ্যে শাড়ি ও লুঙ্গি বিতরণ করা হয়। ১০০ জন নারীকে শাড়ি এবং ৫০ জন পুরুষের হাতে লুঙ্গি তুলে দেওয়া হয়। বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক রেজা আমিন আওলা বন্যাদুর্গত নারী-পুরুষের হাতে শাড়ি ও লুঙ্গি তুলে দেন।

নওগাঁ

গতকাল নওগাঁর ধামইরহাট উপজেলায় ইসবপুর ইউনিয়নের পূর্ব চন্দ্রপুর চক চৈতন্য ও পঞ্চবর্গা গ্রামের ৫০ জন বন্যাদুর্গত নারীর মধ্যে শাড়ি বিতরণ করা হয়েছে। নতুন শাড়ি হাতে পেয়ে পঞ্চবর্গা গ্রামের আজেদা খাতুন বলেন, ‘বানেত হামার সব শ্যাষ হয়ে গেছে। এবার ঈদত নতুন কাপড় পরার পামু এটা মোর কল্পানতই আছিল না। শাড়িটা প্যায়ে খুব আনন্দ ল্যাগছে।’

(প্রথম আলোর নিজস্ব প্রতিবেদকআঞ্চলিক কার্যালয় ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরের ভিত্তিতে তৈরি প্রতিবেদন)

বন্যা ত্রাণ তহবিল

গতকাল যাঁরা সহায়তা করেছেন

মুশফিক আহমেদ চৌধুরী ৯৯ হাজার ৫০০, সেলিমা মান্নান ২০ হাজার, সিনিয়র সিটিজেন ফোরাম ১৫ হাজার ৬০০, চট্টগ্রাম রেডিয়েন্ট স্কুল অ্যান্ড কলেজের স্কাউট দলের পক্ষে অধ্যক্ষ অরুণাক্ষী তালুকদার ১৫ হাজার, ফেসবুকভিত্তিক প্রতিষ্ঠান লুজ টু গেইন ১৩ হাজার ৭৬৫, লোটাস সার্জিক্যাল ১০ হাজার, লায়লা আরজুমান্দ বানু ১০ হাজার, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ১০ হাজার, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ৬ হাজার ১৫৪, কাজী শফিউল আলম খোকন ২ হাজার, তোশিবা কাশেম বিনি ২ হাজার টাকা এবং সরাসরি ব্যাংকে জমা ১ লাখ ৫৯ হাজার ২৬৩ টাকা।

*গতকাল মোট জমা

৩,৬৩,২৮২ টাকা

এ পর্যন্ত মোট জমা

৫৩,৯৭,৬১৯ টাকা

*২২ জুলাই থেকে গতকাল পর্যন্ত বিতরণ ৪৮,১৪,৫৮২ টাকার ত্রাণ।

তহবিলে অর্থ সহায়তার জন্য

প্রথম আলো ট্রাস্ট: ত্রাণ তহবিল

হিসাব নম্বর ২০৭-২০০-১১১৯৪

ঢাকা ব্যাংক লিমিটেড

কারওয়ান বাজার শাখা।


সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে
Designed & Developed by Tiger Cage Technology
উপরে যান