প্রকৃতি কি প্রতিশোধ নিচ্ছে?

Sat, Mar 28, 2020 6:34 PM

প্রকৃতি কি প্রতিশোধ নিচ্ছে?

শবনম সায়েমা: প্রকৃতি কি প্রতিশোধ নিচ্ছে? অস্ট্রেলিয়ার আগুন, বিশ্ব জুড়ে করোনা ভাইরাস মহামারী কি তার ই প্রমান? প্রকৃতির প্রতিশোধ থামিয়ে দিচ্ছে মানুষের স্বাভাবিক জীবন যাত্রা।আগুনে তবু প্রকৃতি নিজেও পুড়েছে কিন্তু করোনা তে মানুষ ছাড়া কেও ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে না। বিশ্ব জুড়ে কমে গেছে গাড়ির চাকা ঘোরা , স্কুল নেই মানে স্কুলে যাওয়া হাজার হাজার গাড়ি নেই, যারা পারছে ঘরে বসে কাজ করছে, গণ জমায়েত নেই  মানে গাড়ির তেল পুড়ছে কম। চীনে বায়ু দূষণ নাকি রেকর্ড পরিমান কমে এসেছে।  কক্সবাজারের সমুদ্র সৈকতে ডলফিন খেলছে, সৈকতে উঠে এসেছে কচ্ছপ, বন্য প্রাণীর বিচরণ বেড়ে গেছে।মহামারীর ভয়ে বিলাস দ্রব্য ক্রয় কমে গেছে স্বাভাবিক ভাবেই।  মানুষ খাবার, ওষুধ আর নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস কিনছে  বিলাস দ্রব্য বাদ দিয়ে।  আজ দেখলাম ব্রাম্পটনে এক এমপ্লয়ী করোনাতে আক্রান্ত হওয়ায় কোকা কোলা সাময়িক ভাবে উৎপাদন ও বাজারজাত করণ বন্ধ রেখেছে।  কারখানার চাকাও কি বন্ধ হতে যাচ্ছে? কারখানার চাকা না চললে মানুষের ইনকাম হবে কোথা থেকে? উন্নত দেশ গুলোর জনগণ মর্টগেজ, গাড়ির লোন আরও হাজার ঋণের জালে আবদ্ধ।  ইতালিতে শুনলাম, আগামী কয়েক মাসের জন্য মর্টগেজ দিতে হবে না । কানাডা তে প্রধানমন্ত্রী Trudo বলেছেন কাওকে বাড়িভাড়া আর গ্রোসারি কেনার টাকার ভয় পেতে হবে না।  তারা আছেন পাশে।  খুব ভালো। এভাবে আপাতত হয়তো বাঁচা যাবে, যদিও দরিদ্র দেশগুলোর কি হবে চিন্তাও করা যাচ্ছে না। অবশ্য জীবানুর মাঝে বসবাস করায় জীবাণু  প্রতিরোধের ক্ষমতা সম্ভবত এখনো তাদের তুলনামূলক ভালো অবস্থানে রেখেছে ।(যদিও বাংলাদেশের মতো দেশের সরকাররা ভাঙা স্ক্রীনিং মেশিন আর শুধুমাত্র রাজধানীতে রোগ নির্ণয়ের ব্যবস্থা নিয়েই দাবি করছে তারা করোনাকে ঠেকিয়ে রেখেছে)  ভবিষ্যৎ কি হবে কে জানে? কিন্তু বিশ্বের অর্থনীতি যে বিশাল ধাক্কা খাচ্ছে মনে হচ্ছে মানুষকে পুরো অর্থনীতি ঢেলে সাজাতে হবে।

 

অনেক তো বিপ্লব হলো বিশ্ব রাজনীতিতে, সামন্তবাদ  গিয়ে পুঁজিবাদ এসেছিলো সেও তো এক বিপ্লবের মধ্য দিয়েই, মনুষ্য সমাজ সমাজতন্ত্র দেখলো কয়েক জায়গায়, লোভী মানুষের  হাতে দেখলো সাম্রাজ্যবাদ।  মানুষ মুক্তি পায় নি, এক রাজার হাত থেকে আরেক রাজার হাতে ক্ষমতা গিয়েছে, মানুষের চরিত্র বদলায় নি।  নির্যাতিত নির্যাতিত ই রয়ে গেছে।  যে ক্ষমতা পেয়েছে সেই নিজেকে প্রভু ভেবেছে, আর মানুষকে ভেবেছে তার প্রজা।  এবার কি প্রকৃতি তার নিজস্ব বিপ্লব দিয়ে পৃথিবী পরিশুদ্ধ  করতে উদ্যোগ নিলো? ক্ষমতার মাথায় যারা আছে তারাও আক্রান্ত হচ্ছে, অর্থাৎ কেও ই নিরাপদ না।

       

ধনীরা অন্যান্য প্রাকৃতিক দুর্যোগ যেমন, বন্যা , খরা , সাইক্লোন থেকে বেঁচে গেছে।  কিন্তু যে রোগের  চিকিৎসা  নেই টাকা দিয়ে তাকে ঠেকানো সম্ভব না। আক্রান্ত কানাডার প্রধানমন্ত্রীর স্ত্রী, ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী, স্বাস্থমন্ত্রী, ইরানের ধর্মীয় নেতা , কে নয় ?এই দুর্যোগ তাই পুরো মানবজাতির উপর দুর্যোগ। হ্যা , মানব জাতি এবং শুধুমাত্র মানবজাতির উপর দুর্যোগ। প্রকৃতির কোনো ক্ষতি হচ্ছে না বরং লাভ হচ্ছে, বন্য পশু মানুষের আক্রমণ থেকে বেঁচে যাচ্ছে, মানুষ ঘরে বন্দি থাকা মানে সব রকম তথাকথিত উন্নয়ন কম হবে আর পরিবেশ মানুষের অত্যাচার থেকে ভালো থাকবে। গাড়ির তেল যত কম পুড়বে, কারখানার মেশিন যত কম চলবে ফসিল ফুয়েল তত কম পুড়বে ।  আমার মাঝে মাঝে মনে হচ্ছে প্রকৃতি প্রতিশোধ নিচ্ছে না, নিজেকে restore করছে। প্রকৃতি qruel হয়েছে কাইন্ড হওয়ার জন্য। আমাদের উচিত নিজেদের বাঁচানোর চেষ্টা করার সাথে সাথে প্রকৃতিকে নিজেকে restore করার উদ্যোগকে সহায়তা করা। না হয় কিছু দিন বন্ধই রাখলাম তথাকথিত উন্নয়ন, যতটা সম্ভব ঘরে থাকলাম, এড়িয়ে চললাম জনসমাগম, গাড়ির তেল কম পুড়ালাম।  শুধুমাত্র আমাদের আপাতত ভালো থাকার জন্য না, বরং আমাদের সন্তানদের জন্য একটা সুস্থ , সুষ্ঠ প্রকৃতি ফিরিয়ে দেয়ার জন্য।


Designed & Developed by Tiger Cage Technology
উপরে যান